বান্দরবানে বঙ্গবন্ধু ৯ম বাংলাদেশ গেমসে কারাতে ৪ স্বর্ণ পেলো সেনাবাহিনী, আনসার ৩

fec-image

অলিম্পিক গেমস আদলে দেশের সবচেয়ে বড় ক্রীড়া আসর ‘বঙ্গবন্ধু ৯ম বাংলাদেশ গেমস্’ এর কারাতে প্রতিযোগিতা চলছে বান্দরবানে। প্রতিযোগিতার প্রথম দিনের খেলায় একক কাতা (মহিলা) স্বর্ণ পেয়েছে বান্দরবানের মেয়ে নুমে মারমা। এছাড়াও রৌপ্য পেয়েছে বাংলাদেশ আনসার বাহিনীর হুমাইরা আক্তার অন্তরা, তাম্র পেয়েছে কক্সবাজার জেলা ক্রীড়া সংস্থার এলিক মারমা ও বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর কারিমা খাতুন।

দলগত কাতা প্রতিযোগিতা (মহিলা) স্বর্ণ পেয়েছে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর কারিমা খাতুন, জান্নাতুর নুর জিতু, আগাতা সরেণ। রোপ্য পেয়েছে বাংলাদেশ আনসার বাহিনীর জান্নাতুল ফেরদৌস সুমী, হুমায়রা আক্তার অন্তরা, সানজিদা সিদ্দিকা শোভা। রাজশাহী জেলা ক্রীড়া সংস্থা থেকে তাম্র পেয়েছে সান্তনা সরেণ, রুনা সরেণ, জয়ন্তী বিশ্বাস। বান্দরবান জেলা ক্রীড়া সংস্থা থেকে তাম্র পেয়েছে নুমে মারমা, ফুং রুই ম্রো, রুই তুই ম্রো।

৪৫কেজি কুমিতে (মহিলা) স্বর্ণ পেয়েছে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সায়েমা জামান, বাংলাদেশ আনসার ও ভিডিপি বাহিনীর নাইমা খাতুন, চাঁপাইনবাবগঞ্জ ও ক্রীড়া সংস্থার কেয়া খাতুন ও বি এফ ডি সি মনিকা রহমান।

৫০ কেজি কুমিতে (মহিলা) স্বর্ণ পেয়েছে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর মাউন জেলা বর্ণা, রোপ্য পেয়েছে ঢাকা জেলা ক্রীড়া সংস্থার আশা খাতুন, বান্দরবান জেলা ক্রীড়া সংস্থার নুমে মারমা। একক কাতা (পুরুষ) স্বর্ণ পেয়েছে বাংলাদেশ আনসার ও ভিডিপি বাহিনীর মো. হাসান খান, রোপ্য পেয়েছে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর মো. সাহাবুল, তাম্র পেয়েছে ফরিদপুর জেলা ক্রীড়া সংস্থার জান্নাতুল নাইম ও নারায়নগঞ্জ জেলা ক্রীড়া সংস্থার প্রশান্ত বিশ্বাস।

দলগত কাতা (পুরুষ) স্বর্ণ পেয়েছে বাংলাদেশ আনসার ও ভিডিপি বাহিনীর মো. হোসেন খান, মো. হাসান খান, সৈয়দ নুরুজ্জামান। রোপ্য পেয়েছে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর মো. আরিফ হোসেন, মো. মনোয়ার হোসেন বাপ্পি, ও মো. শাহেদ আহমেদ। তাম্র পেয়েছে নারায়ণগঞ্জ জেলা থেকে প্রশান্ত বিশ্বাস, বিজয় মুর্ম, রাব্বি ইসলাম ও বান্দরবান জেলা থেকে তাম্র পেয়েছে উথোয়াই ম্রো, ভেংলন ম্রো, মাংওয়াই ম্রো।

৫০কেজি কুমিতে (পুরুষ) স্বর্ণ পেয়েছে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর মো. সবুজ মিয়া, রোপ্য পেয়েছে বি কে এস পি’র মো. আসিফ আলী, তাম্র পেয়েছে বাংলাদেশ আনসার ও ভিডিপি বাহিনীর হোসাইন মোহাম্মদ নাইম, গোপালপুর জেলা ক্রীড়া সংস্থার মো. সাখাওয়াত হোসেন।

৫৫কেজি কুমিতে (পুরুষ) স্বর্ণ পেয়েছে বাংলাদেশ আনসার ও ভিডিপি বাহিনীর মোস্তফা কামাল, রোপ্য পেয়েছে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর মো: জুনায়েদ, তাম্র পেয়েছে গাজীপুর জেলা ক্রীড়া সংস্থা ফরহাদ হোসেন, চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা ক্রীড়া সংস্থার ইমরুল হক নিশান।

এর আগে সকালে পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বান্দরবান জেলা পরিষদ চত্বরে নবনির্মিত অডিটোরিয়ামে কারাতে প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করেন।

এসময় তার সাথে সেনাবাহিনীর রিজিয়ন কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল জিয়াউল হক, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও কারাতে ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক ক্যশৈহ্লা, জেলা প্রশাসক ইয়াসমীন পারভীন তিবরিজী, পুলিশ সুপার জেরিন আখতার সহ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

প্রতিযোগিতায় কাতা ও কুমিতে মোট ১৯টি ইভেন্টে দেশের বিভিন্ন জেলার দেড়শ জন পুরুষ নারী প্রতিযোগী অংশগ্রহণ করছে। লকডাউনের এ সময়ে স্বাস্থ্যবিধি মেনে এই প্রতিযোগিতা শুরু হয়। তিন দিনব্যাপী চলবে এ প্রতিযোগিতা।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

19 + 5 =

আরও পড়ুন