‘সোনাদিয়া দ্বীপে আর্ন্তজাতিক মানের ইকো ট্যুরিজম’

fec-image

দেশের এক মাত্র পাহাড়ি দ্বীপ মহেশখালীর উপদ্বীপ খ্যাত সোনাদিয়া দ্বীপে হচ্ছে আন্তর্জাতিক মানের ইকো ট্র্যরিজম পার্ক। দেশি-বিদেশি পর্যটক আকর্ষণ করতে বাংলাদেশ ইকোনোমিক জোন কর্তৃপক্ষ (বেজা) এসব মাস্টারপ্ল্যান বাস্তবায়নে কাজ করবে।

কয়েক ধাপে ৯ বছরে ৮ হাজার ৯৬৭ একর জমিতে সোনাদিয়া ইকো ট্যুরিজম পার্ক তৈরি করা হবে। প্রথম ধাপের কাজ শেষ দুই বছরে। ইতিমধ্যে সোনাদিয়া দ্বীপে নতুন করে ঝাউগাছের চারা রোপন করা হয়েছে।

শুক্রবার এক ঝটিকা সফরে এই দ্বীপের পর্যটনের সম্ভাবনার দ্বীপটি ঘুরে দেখেন বাংলাদেশ সরকারের বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মো. মাহবুব আলী বলেন, বর্তমান সরকার মহেশখালীর সোনাদিয়ায় ইক্যুটুরিজম ও পর্যটনীয় স্পট হিসেবে গড়ে তুলতে ব্যাপক পরিকল্পনা নিয়েছেন। এছাড়াও মহেশখালীর ঐতিহাসিক আদিনাথ মন্দিরে পর্যটকদের আরো আকৃষ্ট করে তুলতে উদ্যোগ নেওয়া হবে।

তিনি শুক্রবার (২৭ আগস্ট) দুপুরে মহেশখালীর সোনাদিয়া ও আদিনাথ মন্দির এলাকা পরিদর্শন করেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন, মহেশখালী-কুতুবদিয়া আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব আশেক উল্লাহ রফিক, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক এডভোকেট সিরাজুল মোস্তফা, কক্সবাজার জেলা প্রশাসক মো. মামুনুর রশীদ, মহেশখালী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মাহফুজুর রহমান, থানার অফিসার ইনচার্জ মো. আবদুল হাই, কুতুবজোম ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মোশারফ হোসেন খোকন, যুবলীগ নেতা শেখ কামাল সহ সরকারি কর্মকর্তা ও জেলা, উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ।

এদিকে সাংসদ আলহাজ্ব আশেক উল্লাহ রফিক মাননীয় প্রতিমন্ত্রী মো. মাহাবুব আলীকে মহেশখালীতে স্বাগত জানান। পাশাপাশি মহেশখালীর সোনাদিয়া ও আদিনাথ মন্দির সহ সার্বিক বিষয় নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা করেন।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

11 − 3 =

আরও পড়ুন