ইবাদত-বন্দেগিতে সময় কাটছে চম্পার

fec-image

করোনাভাইরাসের কারণে কোনো শুটিং করছেন না অভিনেত্রী গুলশান আরা আক্তার চম্পা। এ সুযোগে পরিবারকে অনেক বেশি সময় দিচ্ছেন। তবে অবকাশ যাপনের এ সময়টাতে ইবাদতে আরও বেশি মশগুল হয়েছেন আশির দশকের এ জনপ্রিয় অভিনেত্রী।  

চম্পা বলেন, করোনার কারণে এখন আর কাজ করছি না। বাসায় সময় কাটাচ্ছি। ধর্মকর্ম আর ইবাদত বন্দেগি করছি। বাসার বিভিন্ন কাজ করছি। পরিবারকে সময় দিচ্ছি।

১৯৮৬ সালে প্রয়াত শিবলী সাদিকের ‘তিন কন্যা’ সিনেমার মাধ্যমে চলচ্চিত্রে অভিষেক হয় চম্পার। তবে ১৯৮১ সালে ছোটপর্দায় প্রয়াত আব্দুল্লাহ আল মামুনের ‘ডুবসাঁতার’ নাটকের মাধ্যমে অভিনয় অঙ্গনে আগেই যাত্রা শুরু হয় তার।

একসময় নিয়মিত দাপিয়ে বড়পর্দায় অভিনয় করতেন তিনি। উপহার দিয়েছেন অসংখ্য সুপারহিট সিনেমা।

চম্পা অভিনীত সর্বশেষ সিনেমা ‘বিশ্বসুন্দরী’ মুক্তি পেয়েছে গত ডিসেম্বরে। করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে এবং মনের মতো গল্পে পেলে আবারও নতুন সিনেমায় তিনি অভিনয় করবেন বলে জানিয়েছেন।

চম্পা-সেরা অভিনেত্রী হিসেবে তিনবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছেন। এগুলো হলো- গৌতম ঘোষের ‘পদ্মা নদীর মাঝি’, শাহজাহান চৌধুরীর ‘উত্তরের খেপ’ ও শেখ নেয়ামত আলীর ‘অন্যজীবন’। আর সেরা পার্শ্ব অভিনেত্রী হিসেবে দু’বার চাষী নজরুলের ‘শাস্তি’ এবং মুরাদ পারভেজের ‘চন্দ্রগ্রহণ’ চলচ্চিত্রের জন্য জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পান তিনি। এছাড়াও ‘শেরেবাংলা পদক’ পেয়েছেন এই অভিনেত্রী।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

14 + three =

আরও পড়ুন