ঘরে ফেরার অপেক্ষায় বান্দরবান শহরের বন্যার্ত পরিবার

fec-image

বান্দরবানে টানা বর্ষণে বিভিন্ন উপজেলা প্লাবিত হয়েছে। গত চব্বিশ ঘন্টা ধরে ঘরে ফিরতে পারছেন না বন্যার্তরা। শহরের বেশ কয়েকটি এলাকা এখনো পানির নিচে রয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুর থেকে পানি বাড়ছে আর কমছে। উজানে বৃষ্টিপাত অব্যাহত থাকায় সাঙ্গু নদীর পানি বিপদসীমার কাছাকাছি রয়েছে। পানি উন্নয়ন বোর্ডের তথ্য মতে, বর্তমানে সাঙ্গু নদীর পানির স্কেল ১৩.২০ ফুট। যার বিপদসীমার স্কেল ১৫.৭৫ফুট।

এদিকে আশ্রয় কেন্দ্রে থাকা ৪৪০ পরিবারের মানুষের দুর্ভোগে রয়েছে। সরকারিভাবে খাবারের ব্যবস্থা করা হলেও বিশুদ্ধ পানির অভাব, গরু, ছাগল ও মুরগির খাদ্য সংকটে দিশাহারা হয়ে পড়েছেন। বৃহস্পতিবার রাতে বান্দরবান শহর মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়স্থ অস্থায়ী আশ্রয় কেন্দ্র পরিদর্শণ করেছেন জেলা প্রশাসক ইয়াছমিন পারভীন তিবরীজি, পৌর মেয়র ইসলাম বেবী, প্যানেল মেয়র সৌরভ দাশ শেখরসহ সংশ্লিষ্ট বিভাগের সরকারি কর্মকর্তারা। বন্যার্তসহ ৩ হাজার মানুষের জন্য খাবার তৈরি করা হয়েছে। এদিকে আবহাওয়া পরিস্থিতির উন্নতি না হওয়ায় পানি বৃদ্ধির আশঙ্কা করছেন বন্যার্তরা।
পৌর এলাকার ৭নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা সাদেক হোসেন, ইসলামপুর এলাকার মো. কাশেম জানান, গত রাত থেকে তারা ঘর ছেড়ে পার্শ্ববর্তী এলাকায় আশ্রয় নিয়েছেন। পানি কমলে নিজ ঘরে ফেরার অপেক্ষা করছেন তারা।

বন্যার সার্বিক পরিস্থিতির বিষয়ে বান্দরবান জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কায়েসুর রহমান জানান, বন্যার্তদের জন্য পৌর এলাকায় ১১টি আশ্রয়ন কেন্দ্র খোলা হয়েছে। বৃহস্পতিবার রাত পর্যন্ত ৪৪০পরিবার আশ্রয় নিয়েছে। তাদের খাবারও সরবরাহ করা হচ্ছে।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

12 + 16 =

আরও পড়ুন