ঘুমধুমে গৃহবধূর মৃত্যু নিয়ে রহস্য!

fec-image

নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার ঘুমধুম ইউনিয়নের উত্তর ঘুমধুম বড়ুয়া এলাকায় এক গৃহবধূর মৃত্যু নিয়ে নানান কথা চলছে। এ ঘটনায় বিভিন্ন জনে মতামত ব্যক্ত করেছেন ভিন্ন ভাবে। মঙ্গলবার (১৩ আগস্ট) দুপুরে এই মৃত্যুর ঘটনাটি ঘটেছে। বুধবার (১৪ আগস্ট) তার অন্তোষ্টিক্রিয়া সম্পন্ন হওয়ার কথা রয়েছে।

স্থানীয় এলাকাবাসি সুত্রে জানা গেছে, এ উপজেলার উত্তর ঘুমধুম বড়ুয়া এলাকার বকূর বড়ুয়ার স্ত্রী সোমবার (নাম জানাতে অপারগ) স্বামীর সাথে অভিমান করে উখিয়া উপজেলার রাজাপালংস্থ বাপের বাড়িতে চলে যায়। সেখানে অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করেন। সেখানে মঙ্গলবার দুপুরে মারা যায়।

কি কারণে এই গৃহবধূর মৃত্যু হয়েছে তা নিয়ে বেশ কয়েকজন গ্রামবাসির সাথে কথা হয়। এক ব্যক্তি নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক জানায়, দীর্ঘদিন ধরে বকূল বড়ুয়া তার স্ত্রীকে মানষিক ও শারিরিক ভাবে নির্যাতন করে আসছিল। এক পর্যায়ে বকুল বড়ুয়াসহ তার পরিবারের সদস্য মিলে তাকে সোমবার শারিরিক ভাবে নির্যাতন করে।

পরে খবর পেয়ে গৃহবধুর বাপের বাড়ির লোকজন এসে তাকে মুমুর্ষ অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যায়, সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। কিন্তু এ বিষয়টি সম্পূর্ণ অস্বীকার করেছেন গৃহবধূর স্বামীর পরিবার। তাহলে আসল রহস্য কি বের করার দায়িত্ব পুলিশের বলে জানিয়েছেন ঘুমধুমের সচেতন মহল।

ঘুমধুম ফাড়ির ইনচার্জ ওসি (তদন্ত) ইমন চৌধুরী বলেন, গৃহবধূটি বাপের বাড়িতে স্ট্রোক করে মারা গেছে বলে স্বামীর পরিবার দাবি করে আসছে। তবে কি কারণে স্ট্রোক করেছে তা এখনো নিশ্চিত করে বলতে পারছিনা। এছাড়াও অন্য কোন কারণে মৃত্যু হয়ে থাকলেও কোন পক্ষ থেকে এ ধরনের অভিযোগ পাওয়া যায়নি।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

eighteen + six =

আরও পড়ুন