আইকন অব দ্য সিজ

জাহাজ নয় সাগরে ঘুরছে যেন গোটা একটা শহর!

fec-image

যাত্রা শুরু করেছে বিশ্বের বৃহত্তম প্রমোদতরী ‘আইকন অব দ্য সিজ।’ যুক্তরাষ্ট্রের মিয়ামি সৈকত থেকে যাত্রা শুরু করেছে প্রমোদতরীটি।

শুনতে অবাক লাগলেও এ প্রমোদতরীতে রয়েছে— সাতটি সুইমিং পুল, ছয়টি ওয়াটার স্লাইড, ৪০টি রেস্তোরাঁ। এ ছাড়াও যাত্রীদের মনোরঞ্জনে এতে থাকছেন ৫০ জনেরও বেশি সঙ্গীতশিল্পী ও ১৬টি অর্কেস্ট্রা। এতে যাত্রা করতে পারবেন সাড়ে ৭ হাজারের বেশি যাত্রী। কাজ করবেন প্রায় আড়াই হাজার কর্মী।

বিশালাকার একটি ওয়াটার পার্কও রয়েছে এতে। রয়েছে ‘সার্ফসাইড’ নামে একটি পারবারিক এলাকা। ‘রয়্যাল প্রমেনেড’ থেকে সরাসরি সমুদ্রের দৃশ্য দেখা যাবে। কয়েক ধরনের কেবিন রয়েছে এই প্রমোদতরীতে। ৭০ শতাংশ কক্ষের সঙ্গে বারান্দা রয়েছে। এই বারান্দায় দাঁড়িয়ে উপভোগ করা যাবে সমুদ্রের নীল সৌন্দর্য।

কথা রয়েছে সাত দিনে এ প্রমোদতরীতে ক্যারিবীয় দ্বীপপুঞ্জের বিভিন্ন জায়গা ঘুরে দেখানো হবে।

প্রমোদতরীটির মালিকানা র‌য়াল ক্যারিবীয় গ্রুপের। আয়তনে টাইটানিকের থেকে বেশ খানিকটা বড় এই জাহাজ।

জাহাজটি তৈরিতে খরচ হয়েছে প্রায় ২০০ কোটি ডলার। ফিনল্যান্ডের একটি কারখানায় ৯০০ দিন লেগেছে জাহাজটি নির্মাণ করতে। এখন পর্যন্ত যে হিসেব পাওয়া যাচ্ছে তাতে দেখা যাচ্ছে মাথাপিছু বাংলাদেশি মুদ্রায় মোটামুটি ২ লাখ থেকে ১৩ লাখ টাকা পর্যন্ত খরচ হতে পারে এতে ভ্রমণে। তবে এই খরচ কম-বেশি হতে পারে বলে জানানো হয়েছে নির্মাণসংস্থার ওয়েবসাইটে।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন