পানছড়িতে বিহারের পরিত্যাক্ত জায়গায় সুদর্শী ভিক্ষুর দৃষ্টিনন্দন বাগান

fec-image

বৌদ্ধ বিহারের পরিত্যাক্ত জায়গায় দৃষ্টিনন্দন বাগান সাজিয়েছে শ্রীমৎ সুদর্শী ভিক্ষু। তিনি উপজেলার জ্যোর্তিময় কার্বারী পাড়া উত্তর লতিবান (তালতলা)আর্য্যমিত্র বৌদ্ধ বিহারের বিহারাধ্যক্ষ।

পার্বত্য ভিক্ষু সংঘ বাংলাদেশ এর কেন্দ্রীয় কমিটির অন্যতম এই সদস্য নিরঞ্জন চাকমা ও ফুলোকা চাকমার সন্তান। তিনি খ্রীষ্ট ধর্মে বাইবেল বিষয়ে ডিপ্লোমা ও গ্রেজুয়েশন ডিগ্রী লাভ করে বর্তমানে (বাউবিতে) ইসলাম শিক্ষা (এম.এ.ইন) শেষ বর্ষে অধ্যয়নরত।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, বিহারের পরিত্যাক্ত প্রায় এক একর জায়গায় তিনি মিশ্র ফলজ, বনজ ও জুম চাষ দিয়ে সাজিয়েছেন অপরুপ সাজে। যার মাঝে রয়েছে কামারাং ধান, সেগুন চারা নার্সারী, সিংঙ্গাপুরী ও জলপুরি আনারস, মিশ্র আম, লেবু, পেপে, মালটা, লিচু, মিষ্টি তেতুল, আমড়া, নারিকেল, কলা, আমলকি, কমলা ও খেজুর।

শ্রীমৎ সুদর্শী ভিক্ষুর সাথে কথা হলে তিনি জানান, এটার মাধ্যমে আমি বুঝাতে চাই প্রতিটি ঘরবাড়ি, শিক্ষা ও ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের আশ-পাশের পরিত্যাক্ত জায়গা খালি না রেখে বিভিন্ন বাগান করা সম্ভব। ব্যবসা-বানিজ্য, চাকুরী ও পড়ালেখার পাশাপাশি এভাবে বাগান সাজালে দেশে আর খাদ্য ঘাটতি থাকবে না। সবার মাঝে এই অনুপ্রেরণাটাই আমি পৌঁছে দিতে চাই।

ভিক্ষু আশা করছেন তার নিজের হাতে উৎপাদিত জুম ধান পাকলে তিন পার্বত্য জেলার সংরক্ষিত আসনের মহিলা এমপি বাসন্তী চাকমা, খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান শতরুপা চাকমা ও উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মনিতা ত্রিপুরাকে দিয়ে ধান কাটার উদ্বোধন করবেন।

উপজেলা কৃষি অফিসার মো. আলাউদ্দিন শেখ জানায়, সরেজমিনে গিয়ে আমি ভিক্ষুর বাগান পরিদর্শন করেছি। তার বাগানটি সাজানো এবং পরিকল্পিত। সে একজন সৃজনশীল মনের মানুষ। যার কাছ থেকে নতুন প্রজন্ম অনেক কিছু শিখার আছে।

বিহারের আশ-পাশ ও এলাকাবাসী জানায়, ভিক্ষু খুবই পরিশ্রমী। অবসরের পুরো সময়টুকুই তিনি বাগান নিয়ে থাকেন। সে শুধু একাই করেনা এলাকাবাসীকে ডেকে বাগান করার ব্যাপারে নানান পরামর্শ দিয়ে উদ্ধুদ্ব করে থাকে।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

10 + fifteen =

আরও পড়ুন