বান্দরবানে পর্যটনের গেইট খুলছে ২১ আগস্ট

fec-image

করোনাপরিস্থিতির কারনে পাঁচ মাস বন্ধ থাকার পর স্বাস্থ্যবিধি মেনে শুক্রবার (২১ আগস্ট)  থেকে গেইট খুলছে বান্দরবানের পর্যটন।

বৃহস্পতিবার (২০ আগস্ট) বান্দরবান জেলা প্রশাসন এ–সংক্রান্ত আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেন।

এর ফলে সব পর্যটনকেন্দ্রের পাশাপাশি আবাসিক হোটেল-মোটেল ও রেস্টুরেন্টগুলোর উপর করোনাকালীন সরকারি বাধা নিষেধ উঠে যাবে।

জানা গেছে, মার্চের মাঝামাঝি থেকে করোনাভাইরাসের বিস্তার রোধে বান্দরবানের পর্যটনকেন্দ্র ও আবাসিক হোটেল-মোটেল বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল। তখন থেকে প্রায় পাঁচ মাস ধরে পর্যটন বন্ধ ছিল।

এই জেলার প্রধান অভিভাবক পার্বত্যমন্ত্রী বীর বাহাদুর, জেলা প্রশাসক মো. দাউদুল ইসলাম, সিভিল সার্জন অংশৈ প্রু চৌধুরীর মতো গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিরা করোনা আক্রান্ত হওয়ায় স্বাভাবিকভাবে মানুষের নিরাপত্তার স্বার্থে রেডজোন, লকডাউনের মাধ্যমে রোগ প্রতিরোধে চেষ্টা করা হয়।

যার কারনে অনেকটা নিয়ন্ত্রণে রাখা যায় বান্দরবানকে। এই পযর্যন্ত জেলায় আক্রান্ত হয়েছেন ৬২৫জন। করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে ৪জন।

জেলা প্রশাসনের সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা জানিয়েছেন, জেলায় করোনা পরিস্থিতি আগের চেয়ে কিছুটা স্বাভাবিক হয়ে এসেছে। তাছাড়া কক্সবাজার, রাঙামাটিসহ পার্শ্ববর্তী জেলাগুলোতে পর্যটন খুলে দেওয়া হয়েছে। এজন্য বান্দরবানের হোটেল-মোটেল খুলে দেওয়ার ব্যাপারে নীতিগত সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

জেলার পর্যটন ব্যবসার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা জানিয়েছেন, জেলা শহর ও উপজেলাগুলোতে প্রায় ৬০টি আবাসিক হোটেল-মোটেলে পর্যটন মৌসুমে দৈনিক পাঁচ হাজারের বেশি পর্যটক আসেন।

পর্যটকদের সেবায় আবাসিক হোটেল-মোটেলে প্রায় ১ হাজার ১৫০ জন কর্মী, ট্যুরিস্ট গাইড ২৫০ জন, পাঁচ শতাধিক গাড়িচালক ও চালকের সহকারী এবং খাবারের দোকানের কর্মচারীদের কর্মসংস্থান হয়ে থাকে।

হোটেল ব্যবসায়ী সিরাজুল ইসলাম বলেন, ‘পর্যটন খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্তে আমরা খুশি।’ সরকারি বিধি নিষেধ মেনে চলবেন তারা।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: কান্দরবান, জেলা প্রশাসন, পর্যটন
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

one × 2 =

আরও পড়ুন