মসজিদের ঈমাম ওমর ফারুক হত্যার বিচার দাবিতে খাগড়াছড়িতে মানববন্ধন

fec-image

বান্দরবানের রোয়াংছড়িতে সশস্ত্র সন্ত্রাসীদের ব্রাশফায়ারে মসজিদের ঈমাম নওমুসলিম ওমর ফারুক হত্যার প্রতিবাদে ও হত্যাকাণ্ডের জন্য সন্তু লারমার নেতৃত্বাধীন জেএসএসকে দায়ী করে সন্ত্রাসীদের গ্রেফতারের দাবিসহ ৭ দফা দাবি জানিয়েছে কয়েকটি ইসলামী ও সামাজিক সংগঠন।

মঙ্গলবার (২২ জুন) দুপরে জেলা শহরের শাপলা চত্তরে ক্বওমী মাদ্রাসা ও ওলামা ঐক্য পরিষদ, ইসলামী রেনেসাঁসহ বেশ কয়েকটি সংগঠনের উদ্যোগে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। এর আগে হত্যাকারীদের বিচারের দাবিতে খাগড়াছড়ি প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন করেছে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ও ইসলামী রেনেসাঁ খাগড়াছড়ি জেলা শাখা।

মানববন্ধন থেকে বক্তারা ৭ দফা দাবি জানিয়ে অবিলম্বে মসজিদের ঈমাম নওমুসলিম ওমর ফারুক এর হত্যাকারীদের বিচারের আওতায় না আনলে কঠোর কর্মসূচি ঘোষণার হুশিয়ারী জানান। একই সাথে পাহাড়ে সেনা ক্যাম্প স্থাপন, চিরুনী অভিযানে চালিয়ে অস্ত্র উদ্ধারের দাবি জানানো হয়।

ক্বওমী মাদ্রাসা ও ওলামা ঐক্য পরিষদের খাগড়াছড়ি জেলা সভাপতি মাওলানা কারী উসমান গণির সভাপতিত্বে আয়োজিত মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, সংগঠনের মুফতি ইমামুদ্দীন কাসেমী, হাবিবুল্লাহ জাহাঙ্গীর, ইসলামী আন্দোলনের খাগড়াছড়ি জেলা সভাপতি দেলোয়ার হোসেন, ইসলামী রেনেসাঁর খাগড়াছড়ির সমন্বয়ক ইব্রাহীম খলিল প্রমুখ।

উল্লেখ, গত শুক্রবার (১৮ জুন) বান্দরবানের রোয়াংছড়ির তুলাছড়ি পাড়ায় রাতে নামাজ আদায় শেষে মসজিদ থেকে বের হওয়ার পর সন্ত্রাসীরা তাকে ব্রাশ ফায়ার করে হত্যা করে। ইসলাম ধর্ম গ্রহণের পূর্বে তার নাম ছিল পূর্ণচন্দ্র ত্রিপুরা। তিনি ইতিপূর্বে খ্রিষ্টান ধর্ম ত্যাগ করে মুসলিম ধর্ম গ্রহণ করায় দীর্ঘদিন ধরে সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা তাকে হত্যার হুমকি দিয়ে আসছিল। এরই সূত্র ধরে গত ১৮ জুন শুক্রবার তাকে ব্রাঁশ ফায়ার করে হত্যা করে সন্ত্রাসীরা।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

4 × three =

আরও পড়ুন