শিপ্রার ডিভাইস থেকে ব্যক্তিগত তথ্য বাইরে যাওয়ার সুযোগ নেই: রামু থানার ওসি

fec-image

কক্সবাজারের রামুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবুল খায়ের’র দাবী পুলিশের গুলিতে নিহত মেজর (অব.) সিনহা মো. রাশেদ খানের সহযোগী শিপ্রার ডিভাইসগুলো রামু থানায় সংরক্ষিত আছে। সেখান থেকে তার ব্যক্তিগত কোনো তথ্য, ছবি বা ভিডিও বাইরে যাওয়ার সুযোগ নেই।

বুধবার (১৯ আগস্ট) সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান পুলিশের এই কর্মকর্তা।

আবুল খায়ের বলেছেন, শিপ্রার যে ডিভাইসগুলো রামু থানায় আছে সেখান থেকে তার ব্যক্তিগত তথ্য, ছবি বা ভিডিও বাইরে যাওয়ার কোনো সুযোগ নেই। সেগুলো যেভাবে আনা হয়েছে সেভাবেই রামু থানায় আছে।

আরো পড়ুন: তথ্যপ্রযুক্তি আইনে মামলা করতে মধ্যরাতে থানায় শিপ্রা

শিপ্রার যদি মামলা করতে থানায় আসেন তাহলে পুলিশের ভূমিকা কি হবে জানতে চাইলে আবুল খায়ের বলেন, তিনি থানায় আসলে তারপর দেখা যাবে।

ওসি আবুল খায়ের আরো বলেন, থানায় সংরক্ষিত আলামতগুলো এক্সপার্ট দিয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করানোর জন্য আদালতের কাছে আবেদন করা হয়েছে।

শিপ্রা দেবনাথ জেল থেকে ছাড়া পাওয়ার পর তার বেশকিছু ছবি-ভিডিও সামাজিক যোগাযোগে নানা মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। এতে সামাজিকভাবে বিপর্যস্ত হন শিপ্রা।

কক্সবাজারে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে র‌্যাবের গণমাধ্যম শাখার প্রধান লে. কর্নেল আশিক বিল্লাহ বলেন, ‘শিপ্রা ও সিফাতের কম্পিউটার ডিভাইস ও মেমোরিসহ ২৯টি সামগ্রী কক্সবাজারের রামু থানা পুলিশের হেফাজতে আছে।

আমরা আদালতের মাধ্যমে উক্ত সরঞ্জামাদি র‌্যাব হেফাজতে নেওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছি। কারণ, মামলার তদন্তের স্বার্থে উক্ত কম্পিউটার ডিভাইস গুরুত্বপূর্ণ কাজ দেবে। ’

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

8 − 7 =

আরও পড়ুন