কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতে দুই চেয়ারের দূরত্ব ৫ ফুট করার নির্দেশ

fec-image

কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতের কিটকট ব্যবসায়ীদের নানা অব্যবস্থাপনা দেখে সতর্ক করলো ট্যুরিস্ট পুলিশ।

এক চেয়ার থেকে অপর চেয়ারের দূরত্ব ৫ ফুট নিশ্চিত করতে আগামী বুধবার (১০ আগস্ট) পর্যন্ত সময় বেঁধে দেয়া হয়েছে।

এই সময়ের মধ্যে দুইটি চেয়ারের দূরত্ব ৫ ফিট নিশ্চিত না করলে সংশ্লিষ্ট সবার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেবে ট্যুরিস্ট পুলিশ।

বৃহস্পতিবার (৪ আগস্ট) দুপুরে সৈকতজুড়ে কিটকট ব্যবসায়ীদের অব্যবস্থাপনা পরিদর্শন শেষে এমন নির্দেশনা দেন ট্যুরিস্ট পুলিশ কক্সবাজার রিজিয়নের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. রেজাউল করিম।

অভিযানে তিনি নিজেই ব্যবসায়ীদের সামনে ফিতা টেনে দুইটি চেয়ারের মাঝে ৫ ফুট দূরত্ব নিশ্চিত করেন।

এসময় তিনি বলেন, বিচ ম্যানেজমেন্ট কমিটি থেকে বিভিন্ন সিদ্ধান্ত দেওয়া হয়, সেগুলো আমরা বাস্তবায়ন করি। পর্যটকদের জন্য সবচেয়ে বড় সমস্যা ছিলো, ফটোগ্রাফার। আমরা তাদের জন্য ডাটাবেস করেছি। প্রশিক্ষণের আওতায় এনেছি। তাদেরকে আমরা আইডি কার্ড দেবো, যাতে পর্যটকরা ভালো ফটোগ্রাফার চিহ্নিত করতে পারে।

তিনি আরো বলেন, ‌কিটকটে বসলে সবচেয়ে যন্ত্রণার ছিল ভিক্ষুক, হকার ও মেসেজ পার্টি। এদের দৌরাত্ম্য প্রায় শূন্যের কোঠায়। বিচে এখন হকার নেই বললে চলে। চোখ ফাঁকি দিয়ে দু’একজন নামলেও আমরা তাদেরকে গ্রেফতার করে নিয়ে যাই।

মো. রেজাউল করিম বলেন, সমুদ্র সৈকতে বড় একটি অভিযোগ ছিল কিটকট নিয়ে। একটা চেয়ারের সাথে আরেকটা লাগালাগি অবস্থা।

অথচ বিট ম্যানেজমেন্ট কমিটির শর্ত হলো, দুই চেয়ারের মাঝখানে কমপক্ষে ৫ ফুট দূরত্ব রাখতে হবে। এই শর্ত ভঙ্গ করে অনেক কিটকট ব্যবসায়ী কম দূরত্ব রাখছে। বেশি সংখ্যক চেয়ার বসিয়ে ট্যুরিস্টদের প্রাইভেসি নষ্ট করে।

এখন পর্যটকদের ভিড় অনেক বেশি। দুইটি চেয়ারের মাঝে ৫ ফুট দূরত্ব নিশ্চিত করতে কিটকট ব্যবসায়ীদের বলা হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

10 − nine =

আরও পড়ুন