কুতুবদিয়ায় জীপ-টেম্পো পরিবহন দ্বন্ধে সড়ক অবরোধ

fec-image

কক্সবাজারের কুতুবদিয়ায় যাত্রীবাহী জীপ ও টেম্পো চলাচলকে কেন্দ্র করে সড়ক অবরোধ করেছে শ্রমিকরা। মঙ্গলবার (২০ আগষ্ট) সকাল থেকে উপেজলার প্রধান আজম রোডে যাত্রীবাহী জীপ ও দরবার লেমশীখালী রুটে টেম্পো চলাচল বন্ধ রয়েছে। বড়ঘোপ ও ধুরুংবাজারে জীপ ষ্টেশনে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

টেম্পো মালিক সমিতির সভাপতি কাজী পারভেজ আখতার মানিক জানান, ধুরুংবাজার-লেমশীখালী দরবার ঘাট সেন্ট্রাল রুটে চলাচলকারী যাত্রীবাহী টেম্পো দীর্ঘদিন ধরে সড়ক সংস্কারের কারণে দরবার রাস্তার মাথা হয়ে চলাচল করছিল। মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে জীপ শ্রমিকরা ধুরুংবাজার জীপ ষ্টেশন ও দরবার রোডের মাথায় গাড়ি দিয়ে ব্যারিকেড সৃষ্টি করে সড়ক অবরোধ করে রাখে। ফলে এ রুটে যাত্রীবাহী টেম্পো, মাহিন্দ্র চলাচল বন্ধ হয়ে পড়ে। বিষয়টি তারা পুলিশকে অবহিত করেছেন বলে জানান তিনি।

কুতুবদিয়া জীপ শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক মো: তারেক সিকদার জানান, বিকল্প সড়ক হিসেবে যাত্রীবাহী টেম্পো আজম সড়ক ব্যবহার করার কথা থাকলেও তারা প্রায় আড়াই বছর ধরে ব্যবহার করে আসছে। এতে তারা ক্ষতির সম্মুখিন হচ্ছেন। ফলে তারা টেম্পো, মাহিদ্র চলাচলে বাধা দিচ্ছেন।

অপর দিকে একই কথা ব্যক্ত করে কুুতুবদিয়া জীপ মালিক সমিতির সেক্রেটারী আনছার চৌধুরী বলেন, পুলিশ যাত্রীবাহী জীপ চলাচল বন্ধ করে দিয়েছে। তারা টেম্পো চলাচলে কোন বাধা দিচ্ছে না। অনির্দিষ্ট সময়ের জন্য তারা জীপ চলাচলও বন্ধ রাখবেন বলে জানান।

থানার ওসি মোহাম্মদ দিদারুল ফেরদাউস বলেন, দুই পরিবহন মালিক সমিতির দ্বন্ধে জীপ চলাচল করছেনা। তাছাড়া জীপ শ্রমিকরা সড়কে ব্যারিকেড দিয়ে টেম্পো, মাহিদ্র চলাচল বন্ধ করে দেয়ায় ভোগান্তি বেড়েছে বিধায় আজম সড়কে সাময়িক জীপ চলাচল বন্ধ রাখতে বলেছেন বলেও আবশ্য স্বীকার করেন তিনি।

উভয় পক্ষের দ্বন্ধের দরুণ যে কোন সময় সংঘর্ষের আশংকা করেছেন যাত্রীরা।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: কুতুবদিয়া জীপ শ্রমিক ইউনিয়ন, টেম্পো মালিক সমিতি
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

6 + sixteen =

আরও পড়ুন