চকরিয়ায় ভীমরুলের কামড়ে গৃহবধুর মৃত্যু

fec-image

কক্সবাজারের চকরিয়ায় ভীমরুলের কামড়ে আক্রান্ত হয়ে আবিয়া খাতুন (৫২) নামের এক গৃহবধু দুইদিন পর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু হয়েছে। মারা যাওয়া গৃহবধু আবিয়া খাতুন উপজেলার লক্ষ্যারচর ইউনিয়নের উত্তর লক্ষ্যারচর পূর্ব পাড়া এলাকার মৃত শামসুল আলমের স্ত্রী। স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান গোলাম মোস্তফা কাইছার গৃহবধুর মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

১২নভেম্বর (মঙ্গলবার) সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে চকরিয়া পৌরবাস টার্মিনালস্থ সিটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীনবস্থায় ওই গৃহবধুর মৃত্যু ঘটে।

স্থানীয় ও পারিবারিক সূত্রে জানাগেছ, রোববার দুপুর সাড়ে ১১টার দিকে লক্ষ্যারচর পূর্বপাড়া এলাকার মৃত শামসুল আলমের স্ত্রী আবিয়া খাতুন তার বসতঘরের পাশ্বোক্ত নিজের আলু ক্ষেতের জমিতে কাজ করছিল। ক্ষেতে কাজ করার একপর্যায়ে গৃহবধু আবিয়া খাতুনকে কালো রংয়ের কয়েকটি ভীমরুল কামড় দেয়।

ওই সময় সে ক্ষেতের মধ্যে উচ্চস্বরে চিৎকার করলে স্থানীরা দৌড়ে এসে তাকে ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করে বাড়িতে নিয়ে যায়। এসময় সে গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়লে প্রথমে তাকে চকরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তার অবস্থা খারাপ দেখে দ্রুত জেলা সদর হাসপাতালে প্রেরণ করেন। পরে আহত গৃহবধুর পরিবারের সদস্যরা তাকে চকরিয়া পৌরবাস টার্মিনালস্থ সিটি হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করেন। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে ঘটনার দুইদিন পর আহত আবিয়া খাতুনের মৃত্য হয়।

লক্ষ্যারচর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান গোলাম মোস্তফা কাইছার বলেন, ভীমরুলের কামড়ে গৃহবধুর মৃত্যুর ঘটনাটি বড়ই বেদনাদায়ক।

হাসপাতালে দুইদিন চিকিৎসা দেয়ার পরও তাকে বাঁচানো সম্ভব হয়নি। মঙ্গলবার সন্ধ্যার দিকে হাসপাতালে চিকিৎসাবস্থায় তার মৃত্যু ঘটে।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

17 − two =

আরও পড়ুন