চুল পড়া বন্ধ করার ঘরোয়া ৩ উপায়

fec-image

চুল পড়া বন্ধ করার জন্য নানাকিছু ব্যবহার করেও সমাধান পাচ্ছেন না অনেকে। চুল একবার পড়তে শুরু করলে যেন বন্ধ হওয়ার নামেই থাকে না। এদিকে চুল পাতলা হতে শুরু করলে সৌন্দর্য তো কমেই, সেইসঙ্গে এটি হতে পারে শারীরিক কোনো সমস্যার লক্ষণও। তবে চুল পড়া বন্ধ করার জন্য বাজার থেকে কিনে আনা কেমিক্যালযুক্ত পণ্যের বদলে ব্যবহার করুন ঘরোয়া উপাদান। জেনে নিন চুল পড়া বন্ধ করার ঘরোয়া ৩ উপায়-

নারিকেল দুধের ব্যবহার

চুলের যত্নে নারিকেল তেল তো ব্যবহার করেনই, নারিকেল দুধও কিন্তু উপকারী। চুল পড়া বন্ধ করার পাশাপাশি ‍চুল দ্রুত লম্বা করতেও কাজ করে এটি। এতে কোনো ক্ষতিকর রাসায়নিক উপাদান নেই, সুতরাং নিশ্চিন্তে ব্যবহার করতে পারবেন। চুল ও স্ক্যাল্পের ভিটামিনের ঘাটতি পূরণ করে রক্ত সঞ্চালন বাড়ায় নারিকেল দুধ।

চুলের যত্নে নারিকেল দুধ ব্যবহারের জন্য লাগবে একটি নারিকেল ও একটি শাওয়ার ক্যাপ। নারিকেল কুরিয়ে নিন। এরপর একটি পরিষ্কাল সুতির কাপড়ে রেখে চেপে নারিকেল দুধ বের করে নিন। এবার সেই দুধটুকু হালকা গরম করে নিন। মাথার ত্বক ও চুলে ভালোভাবে ম্যাসাজ করুন এই দুধ। এরপর একটি শাওয়ার ক্যাপ লাগিয়ে রাখুন। এভাবে অপেক্ষা করুন ঘণ্টাখানেক। এরপর আপনার চুলের জন্য মানানসই শ্যাম্পু দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে একবার এভাবে ব্যবহার করলে চুল যেমন সুন্দর হবে, তেমনই হবে মজবুত। চুল পড়াও হবে বন্ধ।

নিমপাতার ব্যবহার

ত্বক ও চুলের যত্নে নিমপাতার ব্যবহার অনেক পুরোনো। নিমে থাকে উচ্চমাত্রায় ফ্যাটি অ্যাসিড, যা মাথার ত্বকের জন্য ‍উপযুক্ত। আর মাথার ত্বক ভালো থাকলেই চুলের বৃদ্ধি ভালো হবে। যারা চুল পড়ার সমস্যায় ভুগছেন, তাদের জন্য এটি একটি উপকারী উপাদান। নিয়মিত নিমপাতা ব্যবহার করলে তা স্ক্যাল্প থেকে অতিরিক্ত তেল উৎপাদন বন্ধ করে। ফলে চুলের গোড়া শক্ত হবে। নারিকেল তেলের সঙ্গে নিমপাতার রস মিশিয়ে তা স্ক্যাল্প ও চুলে ব্যবহার করলে চুল লম্বা হবে দ্রুত। সেইসঙ্গে মাথার ত্বকের যেকোনো সমস্যাও হবে দূর।

১০-১২টি নিমপাতা ও পরিমাণমতো নারিকেল তেল নিন। এবার নিমপাতা বেটে রস বের করে নিন। সেই রসটুকু নারিকেল তেলের সঙ্গে মিশিয়ে মাথার ত্বক ও চুলে মাখুন। এভাবে অপেক্ষা করুন আধা ঘণ্টার মতো। এরপর ধুয়ে নেবেন। নিমপাতা মাথার ত্বকে অ্যান্টি ব্যাকটেরিয়াল উপাদান হিসেবে কাজ করবে। নারিকেল তেল ছাড়াও অলিভ অয়েল বা আমন্ড অয়েল মিশিয়ে ব্যবহার করতে পারবেন। নিয়মিত ব্যবহারে ‍চুল পড়া বন্ধ হবে, আপনি পাবেন কাঙ্ক্ষিত চুল।

মেথির ব্যবহার

চুল পড়া বন্ধ করতে আরেকটি কার্যকরী উপাদান হলো মেথি। এটি চুল দ্রুত লম্বা করতেও কাজ করে। আপনি যদি চান যে চুল পড়া বন্ধ হোক এবং নতুন চুল গজাক, তাহলে মেথির ব্যবহার শুরু করুন। মেথিতে থাকে পর্যাপ্ত প্রোটিন, যা মাথার ত্বকে রক্ত চলাচল বাড়াতে কাজ করে। এছাড়াও এতে ভিটামিন সি, আয়রন এবং পটাশিয়াম থাকে। এসব উপাদান চুলের অকালপক্কতা রোধেও কাজ করে। সেইসঙ্গে চুল করে ঘন ও মসৃণ।

২ চামচ মেথি পানিতে ভিজিয়ে রাখুন সারারাত। এরপর সকালে মেথি বেটে তার সঙ্গে ২-৩ ফোঁটা লেবুর রস মিশিয়ে নিন। মিশ্রণটি মাথায় মেখে অপেক্ষা করুন আধাঘণ্টার মতো। এরপর শ্যাম্পু করে নিন। এতে চুলের গোড়া শক্ত হয়ে চুল পড়া বন্ধ হবে। সপ্তাহে একদিন ব্যবহার করলেই উপকার পাবেন।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

1 × 1 =

আরও পড়ুন