নতুন নির্বাচন হবে পাকিস্তানে

fec-image

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের পরামর্শমতো দেশের পার্লামেন্ট ভেঙে দিয়েছেন রাষ্ট্রপতি ড. আরিফ আলভি। সবাইকে অবাক করে দিয়ে ইমরান খান আজ রোববার পার্লামেন্ট ভেঙে দেয়ার সুপারিশ করেন।

রোববার (৩ এপ্রিল) সকাল থেকেই পাকিস্তানে একটির পর একটি নাটকীয় ঘটনা ঘটে যাচ্ছে। সকালে পার্লামেন্ট অধিবেশন শুরুর পরপরই ডেপুটি স্পিকার কাসিম সুরি অনাস্থা প্রস্তাবকে অসাংবিধানিক আখ্যায়িত করে তা বাতিল করে দেন। এর পরপরই জাতির উদ্দেশে ভাষণে বলেন যে তিনি রাষ্ট্রপতিকে পার্লামেন্ট ভেঙে দেয়ার সুপারিশ করেছেন। এরপর রাষ্ট্রপতি ওই পরামর্শ মেনে পার্লামেন্ট ভেঙে দেন। এখন নতুন নির্বাচন হবে পাকিস্তানে।

এর আগে জাতীয় পরিষদের ডেপুটি স্পিকার কাসিম সুরি প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের বিরুদ্ধে আনা অনাস্থা প্রস্তাবকে অসাংবিধানিক হিসেবে আখ্যায়িত করেন।

ইমরান খান আজ রোববার জাতির উদ্দেশে দেয়া এক ভাষণে বলেন, অনাস্থা প্রস্তাব খারিজ করে দেয়ার জন্য জাতিকে অভিনন্দন জানান। তিনি বলেন, ডেপুটি স্পিকার বিদেশি ষড়যন্ত্রে সরকার পরিবর্তনের চেষ্টা বাতিল করে দিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রী ইমরান বলেন, জাতির সামনে বিদ্রোহ করা হয়েছে।

তিনি বলেন, “আমি বলতৈ চাই ‘ঘাবরানা নাহি হাই’ (ঘাবরাবেন না)। আল্লাহ পাকিস্তান পরিস্থিতি দেখছেন।” আমি পার্লামেন্ট ভেঙে দিতে লিখিতভাবে রাষ্ট্রপতিকে পরামর্শ দিয়েছি। তিনি আরও বলেন, গণতন্ত্রীরা জনগণের কাছে যাবে এবং নির্বাচনের মাধ্যমেই নির্ধারিত হবে জনগণ কাকে ক্ষমতায় চায়।

প্রধানমন্ত্রী ইমরান বলেন, আইনপ্রণেতাদের ভোট ক্রয় করার জন্য বিলিয়ন বিলিয়ন রুপি ব্যয় করা হয়েছে। যারা টাকা নিয়েছে, তিনি তাদেরকে পরামর্শ দেন ওইসব টাকা এতিমদের মধ্যে বিলিয়ে দিতে।

তিনি বলেন, নির্বাচনের জন্য প্রস্তুত হন। কোনো দুর্নীতিপরায়ণ শক্তি দেশের ভবিষ্যত নির্ধারণ করতে পারবে না। পার্লামেন্ট ভেঙে দেয়ার পর পরবর্তী নির্বাচনের প্রক্রিয়া শুরু হবে, তত্ত্বাবধাক সরকার গঠনের প্রক্রিয়া হবে।

তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ফারুখ হাবিব বলেন, ৯০ দিনের মধ্যে নতুন নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

15 + 18 =

আরও পড়ুন