পানছড়িতে স্বেচ্ছাশ্রমে নির্মিত রাস্তায় হাঁটু সমান কাদা

fec-image

এলাকাবাসীর স্বেচ্ছাশ্রমে নির্মিত রাস্তায় জমে থাকে হাঁটু সমান কাদা। এই কাদা পার হয়েই শিক্ষার্থী ও পথচারীর নিত্যদিনের চলাচল। খাগড়াছড়ির ৩নং সদর পানছড়ি ইউপির কালানাল কাদেরের দোকানের পাশ দিয়েই বয়ে গেছে এই রাস্তা। বিগত সাত বছর আগে স্বেচ্ছাশ্রমে রাস্তাটি চলাচলের উপযোগী করে তোলে কয়েক গ্রামবাসী। যার নেতৃত্বে ছিলেন এলাকার বিনিময় কারবারি। কিন্তু দীর্ঘ বছর পার হলেও রাস্তাটিকে আধুনিকায়নের জন্য এগিয়ে আসেনি প্রশাসন বা কোন সংস্থা।

জানা যায়, এই রাস্তা দিয়ে হলধর পাড়া, জগপাড়া, নোয়াপাড়া, আলী চান পাড়া, চন্দ্র কার্বারী পাড়া ও শচীন্দ্র কারবারি পাড়ার সর্বস্তরের লোক-জনের চলাচল। তাছাড়া কালানাল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, পানছড়ি বাজার উচ্চ বিদ্যালয়, পানছড়ি সরকারি মডেল উচ্চ বিদ্যালয় ও পানছড়ি সরকারি কলেজে পড়ুয়া শিক্ষার্থী ও শত শত লোক চলাচল করে এই পথে। বোধিপুর অরণ্য কুটিরেও যেতে হয় এই রাস্তা দিয়ে।

এলাকাবাসীর দাবি রাস্তাটিকে যেন জরুরি ভিত্তিতে ইট সলিং করা হয়। এদিকে পানছড়ি বাজার হতে শনটিলা সড়কটিরও বেহাল দশা। বছরের পর বছর ধরে শুধু প্রতিশ্রুতিই পাচ্ছে পথচারীরা। ছয় কিলোমিটারের এই রাস্তাটি পুরোটাই খানাখন্দে ভরা। বর্তমানে রাস্তাটি সম্পূর্ণ জন চলাচলের অনুপযোগী।

পানছড়ি উপজেলা প্রকৌশলী (এলজিইডি) মো. আবদুল খালেক জানান, আমি সদ্য পানছড়ি কর্মস্থলে যোগদান করেছি। রাস্তাদুটো সরেজমিনে পরিদর্শন করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার কথা বলেন তিনি।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: পানছড়ি, রাস্তা নিমার্ণ, স্বেচ্ছাশ্রম
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

2 × 2 =

আরও পড়ুন