পানামার কাছে হেরে আটের সমীকরণ কঠিন হলো যুক্তরাষ্ট্রে

fec-image

কোপা আমেরিকার শুরুটা ভালোই হয়েছিল যুক্তরাষ্ট্রের। বলিভিয়াকে ২-০ গোলে হারিয়ে শুভসূচনা করেছিল স্বাগতিকরা। তবে দ্বিতীয় ম্যাচে এসে ধাক্কা খেতে হলো যুক্তরাষ্ট্রকে। বাজে পারফরম্যান্সে পানামার কাছে ২-১ গোলে হেরে গেল তারা। এতে কোয়ার্টার ফাইনালের সমীকরণ কঠিন হয়ে গেছে যুক্তরাষ্ট্রের।

মার্সিডিস বেঞ্জ স্টেডিয়ামে শুরুর দিকেই লালকার্ড দেখে ১০ জনের দলে পরিণত হয় যুক্তরাষ্ট্র। ১৮ মিনিটে লালকার্ড দেখে মাঠ ছাড়েন যুক্তরাষ্ট্রের ডিফেন্ডার টিমোথি ওয়াহ। মূলত, এই সুযোগটিই ভালোভাবে কাজে লাগায় পানামা।

তবে একজন কম খেলেও যুক্তরাষ্ট্রের লড়াই ছিল চোখে পড়ার মতো। ১০ জনের দলে পরিণত হলেও প্রথম গোলটি তারাই করে। তাও মাত্র ৪ মিনিট পর। বাঁপায়ের দূরপাল্লার শটে গোল করেন ফ্লোরিয়ান বালোগানা।

লিড নিলেও সেটি বেশিক্ষণ ধরে রাখতে পারেনি যুক্তরাষ্ট্র। ২৬ মিনিটে পানামাকে সমতায় ফেরান সিজার ব্লাকম্যান। ১-১ সমতায় থেকেই বিরতিতে যায় দুই দল।

দ্বিতীয়ার্ধে অনেকটা সময় পানামাকে আটকে রেখেছিল যুক্তরাষ্ট্র। তবে শেষ পর্যন্ত পারেনি। ৮৩ মিনিটে ম্যাচের ভাগ্যনির্ধারণী গোলটি করে বসে পানামা। গোল করেন পানামার ফরোয়ার্ড হোস ফাজারর্ডো। এতে ২-১ ব্যবধানে এগিয়ে যায় লাতিন আমেরিকার দলটি।

৮৮ মিনিটে পানামাও ১০ জনের দলে পরিণত হয়। লালকার্ড দেখেন অ্যাডালবার্টো ক্যারাসকুইলা। ততক্ষণে যুক্তরাষ্ট্রের ফিরে আসার সময় প্রায় শেষ। অবশেষে হার নিয়েই মাঠ ছাড়তে হলো যুক্তরাষ্ট্রকে।

কোয়ার্টার ফাইনালে যেতে হলে গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচে শক্তিশালী প্রতিপক্ষ উরুগুয়ের বিপক্ষে জিততে হতে পারে যুক্তরাষ্ট্রের। অপরদিকে কোপা আমেরিকায় টানা ১৩ ম্যাচে পরাজিত হওয়া দল বলিভিয়ার বিপক্ষে মাঠে নামবে পানামা। এই ম্যাচে যদি পানামা জিতে যায়, তাহলে উরুগুয়ের বিপক্ষে জিততেই হবে যুক্তরাষ্ট্রকে। ড্র করলেও আছে বিপদ। পানামা হেরে গেলে অবশ্য যুুক্তরাষ্ট্রের জন্য সমীকরণটি সহজ হয়ে যাবে।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: কোপা আমেরিকা
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন