পেকুয়ায় প্রবাসীকে পিটিয়ে আঙ্গিনা দখলের অভিযোগ

fec-image

পেকুয়ায় চাঁদা না পেয়ে প্রবাসীর আঙিনা দখলে নিয়ে অবৈধ টং ঘর নির্মাণ করেছে প্রভাবশালী চক্র। এ ঘটনার জের ধরে স্থানীয় দু পক্ষের মধ্যে টানটান উত্তেজনা দেখা দিয়েছে। জবর দখল ও প্রতিহতকে কেন্দ্রে করে হামলার ঘটনাও ঘটেছে। প্রতিপক্ষের ভাড়াটে দৃর্বৃত্তরা ধারালো দা কিরিচ ও লোহার রড সহ অনুপ্রবেশ করে। এ সময় আতঙ্ক ও ভীতি ছড়িয়ে প্রবাসীর বসতবাড়ীর সম্মুখভাগ আঙিনায় একটি টং ঘর নিমার্ণ করে।

এর সূত্রধরে প্রতিপক্ষের হামলায় একজন আহত হয়েছে। স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে পেকুয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। ১৯ অক্টোবর সকাল ৮টার দিকে উপজেলার সদর ইউনিয়নের গোয়াখালী মিঠাবেপারী পাড়ায় এ ঘটনা ঘটে। হামলার শিকার ব্যক্তির নাম প্রবাসী নুরুল আজিম (৩২)। তিনি ওই এলাকার মৃত রাজামিয়ার পুত্র।

ওই ঘটনায় হামলার শিকার ব্যক্তি নুরুল আজিমের বড় ভাই জামাল হোসেন বাদী হয়ে পেকুয়া থানায় একটি লিখিত এজাহার প্রেরণ করে। পেকুয়া থানার ওসি সাইফুর রহমান মজুমদার এজাহার পাওয়ার সত্যতা স্বীকার করেন। তবে ওসি জানান বিষয়টি তদন্তের জন্য এসআই সিদ্দিকুর রহমানকে এর দায়িত্বভার অর্পণ করা হয়েছে।

এজাহারের বাদীর আর্জিসূত্রে জানা যায়, ঘটনার দিন সকালে মিঠাবেপারী পাড়ায় মৃত মোহাম্মদ হোছাইনের পুত্র কপিল উদ্দিন গং ১০/১২ জনের ভাড়াটে লোকজন নিয়ে প্রতিবেশী নুরুল আজিমের বসতবাড়ীতে হানা দেয়। এ সময় কপিল উদ্দিনের নেতৃত্ব উত্তেজিত লোকজন দেশি ধারালো অস্ত্রসস্ত্র নিয়ে ভীতি সৃষ্টি করে এ সময় নুরুল আজিমের বসতবাড়ীর সামনে উঠানের খালী জায়গায় টং ঘর তৈরি করে। আর্জিতে বাদী জানান, এর আগে সন্ত্রাসীরা আমাদের কাছ থেকে ৩ লক্ষ টাকা চাঁদা দাবি করে। আমরা কিছুতেই চাঁদা দিতে রাজি হয়নি। ঘটনার দিন সকালে তারা উঠানে গিয়ে প্রথমে চাঁদা দাবি করে। আমরা দিতে অপরাগতা প্রকাশ করছিলাম। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে তারা উঠানের মধ্যে কুড়ে ঘর তৈরি করে। বাঁশের বেড়া ও পলিথিন চালায় ঝুপড়ি ঘরটি তড়িৎ গতিতে তৈরি করে। এমনকি জবর দখলের কুমানসে তারা উঠানে কয়েকটি খুটি পুতে দেয়। তারা আমাদের বসতবাড়ীর ঘিরাবেড়ায় ভাংচুরসহ ব্যাপক তান্ডব চালায়। এক পর্যায়ে বাড়ীতে প্রবেশ করে নগদ টাকা স্বর্ণলংকার ও বিভিন্ন মূল্যবান দ্রব্যাদি লুট করে নিয়ে যায়। ওই দিন আমি চকরিয়া কোর্টে মামলার হাজিরা দিতে গিয়েছিলাম। আমার ভাই প্রবাসী নুরুল আজিম জবরদখল প্রতিহত করতে সেখানে ছিল। উত্তেজিত লোকজন তাকে হত্যার উদ্দ্যেশে হামলা চালায়। এতে তিনি মারাত্মক জখম হয়েছে। এর আগেও আমাদের উপর একাধিকবার হামলা হয়েছে। পেকুয়া সদর ইউপি গ্রাম আদালত এ সম্পর্কে অবহিত। স্থানীয় চেয়ারম্যান সাহেব গ্রাম পুলিশও পাঠিয়েছিলেন।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: অভিযোগ, পিটিয়ে, পেকুয়ায়
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

thirteen − ten =

আরও পড়ুন