বান্দরবানের ফুলতলী সীমান্তে ১০হাজার ইয়াবা উদ্ধার

fec-image

বান্দরবানের মিয়ানমার সীমান্তবর্তী নাইক্ষ্যংছড়ি থেকে বিপুল ইয়াবা উদ্ধার করেছে ১১ বর্ডার গার্ড ব্যাটালিয়ান (বিজিবি)।

শনিবার (২৪ অক্টোবর) রাত ৯টার দিকে উপজেলার সদর ইউনিয়নের ফুলতলী সীমান্তের লম্বাশিয়া থেকে এসব ইয়াবা উদ্ধার করা হয়। তবে এই ঘটনায় বিজিবি তাৎক্ষনিক কাউকে আটক করতে না পারলের তদন্তের পর তিন মাদককারবারীর বিরুদ্ধে আইনী মামলা করেছে।

১১ বিজিবি ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ‘মিয়ানমার সীমান্ত পার হয়ে ইয়াবার একটি চালান ফুলতলী লম্বাশিয়া হয়ে পাচার করবে মাদককারবারী চক্র’ এমন সংবাদের ভিত্তিতে বিজিবি অধিনায়কের নির্দেশনায় অভিযানে নামে ফুলতলী বিওপির একটি টহল দল।

অভিযান দলটি ফুলতলী বিওপির পশ্চিমদিকে লম্বাশিয়া এলাকায় পৌছলে মাদককারবারীরা দ্রুত পালিয়ে জঙ্গলে গা ঢাকা দেয়। পরে ঘটনাস্থল থেকে ১০ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়। অভিযানে নেতৃত্ব দেন নাইক্ষ্যংছড়ি ১১ বিজিবির নিয়ন্ত্রিত ফুলতলী বিওপি ক্যাম্পের নায়েব সুবেদার ইব্রাহিম হোসেন। ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে নাইক্ষ্যংছড়ি ১১বিজিবি অধিনায়ক লে.কর্ণেল শাহ আবদুল আজিজ আহমেদ জানান, প্রধানমন্ত্রী মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি গ্রহণ করেছেন। এই অবস্থায় বিজিবি তাদের কর্তব্য পালনে অটুট। মাদক বিরোধী অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে জানান তিনি।

এদিকে রবিবার (২৫অক্টোবর) মাদক উদ্ধারের ঘটনায় নাইক্ষ্যংছড়ি থানায় একটি মামলা রুজু করেছে বিজিবি (মামলা নং-১৭। মামলার আসামীরা হলো বেদার মিয়া (৩২), মোহাম্মদ আলী (২৬) ও মো: আবদুর রহিম (২৫)। তাদের মধ্যে প্রথম দুইজন রামু উপজেলার কচ্ছপিয়া ইউনিয়নের ডাক্তারকাটা গ্রামের এবং পরেরজন নাইক্ষ্যংছড়ি ফুলতলী গ্রামের বাসিন্দা।

নাইক্ষ্যংছড়ি থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মুহাম্মদ আলমগীর হোসেন- বিজিবি কর্তৃক দায়ের করা মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান- পলাতক আসামীসহ উপজেলার চিহ্নিত মাদককারবারীদের বিরুদ্ধে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: ইয়াবা, বান্দরবান
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

15 − eleven =

আরও পড়ুন