বান্দরবানে ৩ হাজার ৮শ বন্যার্ত পরিবার ঘরে ফিরেছে

fec-image

বান্দরবানে টানা চারদিনের বৃষ্টিপাতের ফলে সৃষ্ট বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি হয়েছে। শুক্রবার ভোররাতে প্লাবিত এলাকা থেকে পানি নেমে গেছে। বন্যার পরিস্থিতি স্বাভাবিক হওয়ায় নিজ ঘরে ফিরতে শুরু করেছে মানুষ।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা থেকে বান্দরবানে বৃষ্টিপাত না হওয়ায় সাঙ্গু, মাতামুহুরী ও বাকখালী নদীর পানি কমতে শুরু করেছে। উজানেও বৃষ্টিপাত কমেছে। ফলে নিম্ন এলাকায় প্লাবিত অঞ্চলের পানি নেমে গেছে। এদিকে পানি নেমে যাওয়ায় সড়ক যোগাযোগও স্বাভাবিক রয়েছে। শুক্রবার (৩০ জুলাই) সকাল থেকে বান্দরবানের আর্মীপাড়া, শেরে বাংলা নগর, ইসলামপুর, মেম্বারপাড়া, বালাঘাটা, কালাঘাটাসহ আশপাশের নিম্নাঞ্চলের জনজীবনে স্বস্তি ফিরে এসেছে। বিভিন্ন আশ্রয় কেন্দ্রে আশ্রিত মানুষ ঘরে ফিরতে শুরু করেছে এবং যার যার ঘরের আসবাবপত্র পরিষ্কার করার কাজে ব্যস্ত হয়ে পড়েছে।

এদিকে জেলা প্রশাসক ইয়াছমিন পারভিন তিবরীজি জানিয়েছেন, বন্যার পানি কমে যাওয়ায় আশ্রয়কেন্দ্র থেকে অনেকে চলে গেছে। এখনো যারা রয়ে গেছে তাদের জন্য জেলা প্রশাসন খাদ্য সরবরাহের ব্যবস্থা করা হয়েছে। এছাড়াও আশ্রয় কেন্দেগুলোতে বিশুদ্ধ পানি সরবরাহ করছেন পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের বান্দরবান ইউনিট অফিস।

জানা গেছে, প্রশাসনের পক্ষ থেকে বান্দরবানের ৭উপজেলায় ১৪০টি আশ্রয়কেন্দ্র খোলা হয়েছিল এবং পৌরসভায় ২০টি আশ্রয়কেন্দ্রে প্রায় ৩ হাজার ও উপজেলার ৮টি আশ্রয়কেন্দ্রে ৮শত মানুষ গতরাত পর্যন্ত আশ্রয় নিয়েছে। প্রশাসনের পক্ষ থেকে আশ্রয়কেন্দ্রে রুটি, বিস্কুট, বিশুদ্ধ পানি ও রান্না করা খিচুড়ী প্রদান করা হচ্ছে।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

7 + twenty =

আরও পড়ুন