ভালো খেলেও আফসোসের হার বাংলাদেশের

fec-image

অচেনা প্রতিপক্ষ। প্রায় ২০ বছর আগে একবার দেখা হয়েছিল বাংলাদেশের সাথে। সেই সাক্ষাতে বাংলাদেশ হেরেছিল ৩-১ গোলে। এবার জয়ের স্বপ্ন নিয়েই মাঠে নেমেছিল বাংলাদেশ। কিন্তু হয়নি। আফসোসের হারেই মাঠ ছাড়তে হয়েছে জামাল ভূঁইয়াদের।

এশিয়ান কাপ বাছাইয়ের ম্যাচে শনিবার মালয়েশিয়ার বুকিত জালিল স্টেডিয়ামে তুর্কমেনিস্তানের সাথে ২-১ গোলে হেরেছে বাংলাদেশ। ই-গ্রুপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে বাহরাইনের কাছে ২-০ গোলে হেরেছিল বাংলাদেশ। টানা দুই হারে পয়েন্ট তালিকায় তলানিতে লাল সবুজ জার্সিধারীরা। প্রথম ম্যাচ হারলেও দ্বিতীয় ম্যাচে জয় পেল তুর্কমেনিস্তান।

ম্যাচের শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক ছিল তুর্কমেনিস্তান। তার ফল তারা পেয়েও যায় দ্রুত। সাত মিনিটে কর্নার কিকে লিড নেয় দলটি। ডিফেন্ডারদের ফাঁকি দিয়ে বল জালে জড়ান আলতাইমিরাত আন্নাদুরদিউ। কিছুই করার ছিল না গোলরক্ষক আনিসুর রহমান জিকোর।

এক গোল হজমের পর বাংলাদেশও আক্রমণে ফেরে। ঘর সামলানোর পাশাপাশি চলতে থাকে আক্রমণ। ১২ মিনিটেই গোলের দেখা পায় বাংলাদেশ। থ্রু থেকে আসা বল ডি বক্সের ভেতরে হেড নেন রাকিব। তার হেড বল যায় ইব্রাহিমের কাছে, তিনিও দক্ষতার সাথে হেডেই বল জড়ান তুর্কমেনিস্তানের জালে। উল্লাসে মাতে লাল সবুজ জার্সিধারীরা। ম্যাচে আসে ১-১ সমতা।

প্রথমার্ধ পর্যন্ত এই ব্যবধানই ছিল। যদিও এই সময়ে বাংলাদেশ হারায় দুটি গোলের সুযোগ। কিন্তু ইয়াসিন-আরাফাতরা সে সুযোগ কাজে লাগাতে পারেননি।

দ্বিতীয়ার্ধের ৭৭ মিনিটে আমানাউয়ের গোলে লিড নেয় তুর্কমেনিস্তান। গোলশোধের নেশায় তখন উন্মত্ত বাংলাদেশ। হানাতে থাকে আক্রমণ। নির্ধারিত সময়ের শেষ মিনিটে অর্থাৎ ৯০ মিনিটে ম্যাচে সমতা আসার সুবর্ণ সুযোগ পেয়েছিল বাংলাদেশ। ফ্রি কিক থেকে বক্সের মধ্যে বল পেয়েছিলেন বাংলাদেশের তিন খেলোয়াড়। কিন্তু সেই সুযোগ হেলায় হারায় তারা। বল চলে যায় পোস্টের উপর দিয়ে। অথচ লাইনে থাকলেই বল জড়াত জালে। সামনে ছিল শুধু গোলরক্ষক।

নির্ধারিত সময় শেষে অতিরিক্ত ৫ মিনিটের খেলা চলে। এই সময়ে চলে মুষলধারে বৃষ্টি। শেষ মুহূর্তে অল্পের জন্য গোল হজম থেকে বেঁচে যায় বাংলাদেশ। বাংলাদেশের জালে তুর্কমেনিস্তান বল পাঠালেও অফ সাইডের কারণে তা বাতিল হয়ে যায়। শেষ অবধি ২-১ গোলের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে তুর্কমেনিস্তান।

র‌্যাঙ্কিংয়ে বাংলাদেশের চেয়ে ৫৪ ধাপ এগিয়ে ছিল তুর্কমেনিস্তান। পরিসংখ্যান, শক্তিমত্তা সব দিক থেকেই এগিয়ে ছিল দলটি। তবে হারলেও ম্যাচটিতে বাংলাদেশ ভালো খেলেছে। সবচেয়ে বড় কথা অনেকদিন পর গোলের দেখা পেয়েছে জাতীয় দল।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: ফুটবল, বাংলাদেশ
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

twelve − three =

আরও পড়ুন