মাটিরাঙ্গায় শ্রদ্ধা ও ভালোবাসায় ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন

fec-image

মাটিরাঙ্গা কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের পাদদেশে পুষ্পমাল্য অর্পণের মধ্য দিয়ে একুশের প্রথম প্রহরে ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়েছে পার্বত্য খাগড়াছড়ির মাটিরাঙ্গা উপজেলা প্রশাসন, বীর মুক্তিযোদ্ধা, পুলিশ প্রশাসন, সরকারি দল আওয়ামী লীগসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ। দিবসটি উপলক্ষে বৃহস্পতিবার (২০ ফেব্রুয়ারি) মধ্যরাতে শহীদ মিনারে সরকারি পদস্থ কর্মকর্তা, রাজনৈতিক-অরাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, পেশাজীবী, স্বেচ্ছাসেবীসহ হাজারো মানুষের ঢল নামে। এ সময় ‘আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি/ আমি কি ভুলিতে পারি’ গানের সুর বাজতে থাকে।

একুশের প্রথম লগ্নে রাত ১২টা ১মিনিটে পদস্থ বিভাগীয় কর্মকর্তাদের সাথে নিয়ে শহীদ মিনারে রাষ্ট্রের পক্ষে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন মাটিরাঙ্গা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মো. রফিকুল ইসলাম ও মাটিরাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিভীষণ কান্তি দাশ। এসময় মাটিরাঙ্গার সহকারী কমিশনার (ভুমি) ফারজানা আক্তার ববি, ভাইস চেয়ারম্যান মো. আনিসুজ্জামান ডালিম ও ভাইস চেয়ারম্যান হাসিনা বেগম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এর পরপরই ও মুক্তিযোদ্ধা সংসদের পক্ষে মুক্তিযোদ্ধাদের সাথে নিয়ে শহীদ বেদীতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান মাটিরাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিভীষণ কান্তি দাশ। পুলিশ বিভাগের অন্যান্য কর্মকর্তাদের সাথে নিয়ে শহীদ মিনারে পুস্পমাল্য অর্পণ করেন সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মো. খোরশেদ আলম ও মাটিরাঙ্গা থানার অফিসার ইনচার্জ মো. শামসুদ্দিন ভুইয়া।

দেশের অন্যতম প্রাচীন রাজননৈতিক দল ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের পক্ষে দলীয় নেতাকর্মীদের সাথে নিয়ে পৃথক পৃথক ভাবে শহীদ মিনারে ফুল দিয়ে ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন মাটিরাঙ্গা উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি এম হুমায়ুন মোরশেদ খান ও সাধারন সম্পাদক সুভাষ চাকমা, মাটিরাঙ্গা পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি হারুনুর রশিদ ফরাজি ও সাধারণ সম্পাদক এবং পৌর কাউন্সিলর মো. আলাউদ্দিন লিটন, মাটিরাঙ্গা উপজেলা যুবলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মো: রাকিবুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক মো. জহিরুল ইসলাম, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি মো. বাবুল আহম্মেদ ও সাধারণ সম্পাদক মো. কামরুল ইসলাম এবং উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম-আহবায়ক জুয়েল চাকমাসহ বিভিন্ন অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

এরপরই মাটিরাঙ্গা পৌরসভার কাউন্সিলরদের সাথে নিয়ে শহীদ বেদীতে পুস্পমাল্য অর্পন করেন মাটিরাঙ্গা পৌরসভার প্যানেল মেয়র মো: আলাউদ্দিন লিটন।

এরপরপরই মাটিরাঙ্গা সদর ইউনিয়নের পক্ষে চেয়ারম্যান হিরনজয় ত্রিপুরা, জাতীয় মহিলা সংস্থা, মাটিরাঙ্গা প্রেস ক্লাবের পক্ষে সভাপতি এমএম জাহাঙ্গীর আলম ও সাধারন সম্পাদক মুজিবুর রহমান ভুইয়া, মাটিরাঙ্গা উপজেলা দূর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির পক্ষে কমিটি, কবি নজরুল স্পোর্টিং ক্লাব, চরপাড়া পল্লী উন্নয়ন ক্লাব, জাতীয় পার্টি, ইউপিডিএফ (গনতান্ত্রিক), মাটিরাঙ্গা বাজার পরিচালনা কমিটিসহ বিভিন্ন এনজিও, স্থানীয় সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন শহীদ মিনারে পুস্পমাল্য অর্পন করে শহীদ বেদীতে ফুল দিয়ে ভাষা শহীদদের প্রতি প্রদ্ধা নিবেদন করে।

এরপরপরই ৫২‘র ভাষা শহীদদের আত্মার মাগফেরাত কামনায় এক মিনিট নিরবতা পালন শেষে মাটিরাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিভীষণ কান্তি দাশ বলেন, আমাদের মাতৃভাষার স্বকীয়তাকে রক্ষা করতে হবে। মাতৃভাষার জন্য যে আত্মত্যাগ তার মর্যাদা দিতে হবে। তবেই সে ত্যাগের স্বার্থকতা ফুটে উঠবে। অসাম্প্রদায়িক দেশ গড়ার কাজে সকলকে ভুমিকা রাখতে হবে।

মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে মাটিরাঙ্গা উপজেলা প্রশাসন আয়োজিত প্রভাত ফেরী ছাড়াও দিনব্যাপী নানা কর্মসূচি পালনের কথা রয়েছে। দিবসটি উপলক্ষ্যে বিভিন্ন ধর্মীয় উপসনালয়ে ভাষা শহীদদের আত্মার মাগফেরাত কামনায় বিশেষ দোয়া ও মোনাজাতের আয়োজন করা হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

5 × four =

আরও পড়ুন