মানিকছড়ির সাংবাদিক কামাল হোসেন হত্যাকাণ্ডের ১৬ বছর

fec-image

২০০৪ সালের ২১ আগস্ট রাতের গভীরে মানিকছড়ির উদীয়মান সাংবাদিক ও তরুণ ছাত্রনেতা মো. কামাল হোসেন দুর্বৃত্তের নির্মমতায় হত্যাকাণ্ডের শিকার হয়।

একমাত্র শিশুপুত্র, স্ত্রী, মা ও ভাই- বোনের মনে এখনো বয়ে বেড়াচ্ছে শোকের মাতম। সহকর্মী ও রাজনীতিবিদরা তাকে ভুলে গেছে। কিন্তু নিহতের পরিবারে চলছে বেদনার অশ্রু।

জানা গেছে, মানিকছড়ি উপজেলার তৎকালীন ছাত্রনেতা উপজেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক ও দৈনিক আজকের কাগজ, মানিকছড়ি প্রতিনিধি মো. কামাল হোসেন ২০০৪ সালের ২০ আগস্ট দিবাগত রাত সাড়ে ৩টার দিকে (২১ আগস্ট) উপজেলার তিনটহরীর নির্জন গ্রামে নিজ বাড়ি থেকে সশস্ত্র দুর্বৃত্তরা তাকে তুলে নিয়ে বাড়ীর অদূরে কচুখেতে নির্মমভাবে জবাই করে মৃত্যু নিশ্চিত করেন।

এই ঘটনায় পরদিন পুরোদেশে সাংবাদিক মহলে নিন্দার ঝড় উঠে। পরিবারের পক্ষ থেকে অজ্ঞাত দুর্বৃত্তদের আসামি করে হত্যা মামলা দায়ের করা হয়। পুলিশ ঘটনার তদন্ত হত্যাকাণ্ডে দুর্বৃত্তদের সম্পৃক্ততা ফেলেও স্বাক্ষীর অভাবে আটক সন্ত্রাসীরা একপর্যায়ে মামলা থেকে প্রথমে জামিন ও পরে ধীরে ধীরে অবমুক্ত হয়। কিন্তু সন্তান, স্বামী ও পিতা এবং ভাই হারানোর বেদনায় এখনো অঝোরে কাঁদছে পরিবারটি।

নিহতের একমাত্র পুত্র ও স্ত্রীকে ছোট ভাই মো. জহির হোসেন এর সংসারে তুলে দিয়ে সন্তানের পিতার শোক এবং স্ত্রীর স্বামীর বেদনা কিছুটা নিরাময়ের চেষ্টা করেছিল পরিবারবর্গরা। পরে জেলা বিএনপি নেতা ওয়াদুদ ভূঁইয়ার হস্তক্ষেপে নিহতের স্ত্রীকে হাসপালাতে একটি চাকুরীর ব্যবস্থা করা হয়।

এছাড়া দীর্ঘ ১৬ বছরে নিহতের পরিবারে আর কোন খবরা-খবর নিতে কেউই এগিয়ে আসেনি। আজ নিহতের ১৬তম মৃত্যুবার্ষিকীতে নিকটতম আত্মীয়-স্বজনরা পারিবারিকভাবে মিলাদ ও দোয়ার আয়োজন করেছে।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: মানিকছড়ির, সাংবাদিক
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

twelve − 10 =

আরও পড়ুন