মিয়ানমারের সামরিক আউটপোস্টে আরাকান আর্মির হামলা: খালি হয়ে গেছে ২০টি গ্রাম

fec-image

মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যের কিয়াউকতাও ও চিন রাজ্যের পালেতওয়ার মধ্যবর্তী সীমান্তে কালাদান নদীর পূর্ব পাড়ে মিয়ানমারের সামরিক বাহিনী আর আরাকান আর্মির (এএ) মধ্যে মাসব্যাপী যে যুদ্ধ চলছে, সেই যুদ্ধের কারণে ওই অঞ্চলের প্রায় ২০টি গ্রাম মানুষশূণ্য হয়ে পড়েছে।

মন্ট থান পাইন গ্রামের প্রশাসক ইরাবতীকে বলেন, “আমাদের গ্রামকে ছাই করে দেয়া হয়েছে। বেশ কয়েকদিন আগেই সবগুলো ঘর পুড়িয়ে দেয়া হযেছে। আর গতকালে গ্রামের উপাসনালয়ের উপর আর্টিলারি শেল পড়েছে”।

তিনি আরও বলেন, “কালাদান নদীর পাড়ে যারা বাস করেন, তারা সবাই হয় পালেতওয়া অথবা কিয়াউকতাউতে পালিয়ে গেছে। এখনও প্রবল যুদ্ধ হচ্ছে। ফিরে যাওয়ার মতো কোন ঘর আর আমাদের নেই। এমনকি উপাসনার জায়গাটাও আমাদের শেষ হয়ে গেছে”।

কালাদান নদীর পূর্ব পাড়ের সাতটি গ্রাম এবং পশ্চিম পাড়ের ১১টি গ্রাম জনশূণ্য হয়ে গেছে।

৬ ফেব্রুয়ারি থেকে এই লড়াই চলছে। পালেতওয়া টাউনশিপের মিওয়া পাহাড়চূড়ার সামরিক বাহিনীর আউটপোস্টকে ঘিরে এই যুদ্ধ চলছে। আরাকান আর্মি এই আউটপোস্টটির নিয়ন্ত্রণ নেয়ার চেষ্টা করেছিল বলে মিয়ানমারের সামরিক বাহিনী জানিয়েছে।

মন্ট থান পাইন, পিয়াইং তাইন এবং কিয়াউ শি পাইন গ্রামগুলোতে শেল নিক্ষেপ করা হয়েছে। শেলের আঘাতে বেশ কিছু গ্রামবাসী হতাহত হয়েছে বলে গ্রামবাসীরা জানিয়েছে।

সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে মন্ট থান পাইন গ্রাম। শেলের আঘাতে গ্রামের ৬৬টি বাড়ির সবগুলো গুড়িয়ে গেছে। বহু গবাদি পশুও এতে মারা পড়েছে।

রাখাইন রাজ্যের কিয়াউকতাউ এলাকার এমপি উ মাউং মাউং দ্য ইরাবতীকে বলেন যে, “বহু মানুষ শহর এলাকায় পালিয়ে গেছে। শহরের মানুষ শেলের শব্দ সহ্য করতে পারছে না”।

কালাদান নদীর পূর্ব পাড়ে তিন মা গ্রামের কাছে বৃহস্পতিবার দুটো জঙ্গি বিমান নিয়ে হামলা করে মিয়ানমারের সামরিক বাহিনী। গ্রামের এক বৌদ্ধ ভীক্ষু এ তথ্য জানান।

ওই ভীক্ষু দ্য ইরাবতীকে বৃহস্পতিবার বলেন, “আমাদের গ্রামের কাছে প্রায় প্রতিদিনই লড়াই হচ্ছে। আজ সামরিক বাহিনী দুটো জঙ্গি বিমান নিয়ে হামলা করেছে। গ্রামের বাইরে পাহাড়ের উপর সামরিক বাহিনী অবস্থান নিয়েছে। তারা শেলও নিক্ষেপ করেছে। ভারী বন্দুকের শব্দ সহ্য করতে না পেরে, আমি মঠ বন্ধ করে চলে এসেছি”।

সামরিক বাহিনী এবং আরাকান আর্মি উভয়েই নিশ্চিত করেছে যে, আরাকান আর্মির যোদ্ধা আর ৭নং লাইট ইনফ্যান্ট্রি ব্যাটালিয়নের মধ্যে লড়াই হয়েছে।

সূত্র: South Asian Monitor

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

2 × 4 =

আরও পড়ুন