যুক্তরাষ্ট্রে দেখা মিলেছে অর্ধেক মানুষ, অর্ধেক কুকুর

fec-image

ভয়াবহ এক জন্তুর দেখা মিলেছে যুক্তরাষ্ট্রে। যেমন তার আকার আকৃতি, তেমনি তার গঠনে বৈচিত্র্য। অর্ধেক তার মানুষের গঠন। বার্কি অর্ধেক কুকুরের মতো। তাই এর নাম দেয়া হয়েছে ‘ডগম্যান’। ৯ ফুট দীর্ঘ এই অদ্ভুত প্রাণি একে একে পোষা প্রাণিদের হত্যা করছে। তারপরই লুকিয়ে পড়ছে জঙ্গলে। বিকট শব্দ ভেসে আসছে সেখান থেকে।

তার সেই শব্দকে অডিও আকারে ধারণ করা হয়েছে। এ নিয়ে ভয়াবহ এক আতঙ্ক বিরাজ করছে চারদিকে। ডগম্যান দেখতে অনেকটা নেকড়ে বাঘে পরিণত মানুষের মতো। দু’পায়ের ওপর ভর দিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন শহর এলাকায় বিচরণ করছে সে। তার পায়ের ছাপ ধারণ করা হয়েছে। রাতের বেলা বিকট এক শব্দ করছে। তাতে ভয়ে জড়োসড়ো মানুষজন। তবে এখনও সরাসরি মানুষের কোনো ক্ষতি করে নি। সে হত্যা করেছে অনেক পোষা প্রাণিকে।

প্রত্যক্ষদর্শী জোডি কুক বলেছেন, অজ্ঞাত এই প্রাণিটি তাদের প্রাণিগুলো এবং গবাদিপশুকে নৃশংসভাবে হত্যা করছে। তিনিই বলেছেন, এই প্রাণিটির অর্ধেক মানুষ, অর্ধেক কুকুর। প্রায় ৯ ফুট দীর্ঘ। ওজন হবে ৩০০ থেকে ৪০০ পাউন্ড।

জোডি কুক এ নিয়ে নিজে ওয়েব সাইট খুলেছেন। এর নাম নর্থ আমেরিকা ডগম্যান প্রজেক্ট। তিনি আরো অনুসন্ধান করছেন। এরই মধ্যে ওহাইও থেকে তিনটি অডিও ক্লিপ ধারণ করেছেন। তাতে এই প্রাণিটির বিকট শব্দ পাওয়া যায়। এই অডিও ধারণ করা হয়েছে বেলব্রুক, সিনসিনাতি ও ডেটন থেকে। জোডি কুক বলেন, বেলব্রুক থেকে ধারণ করা অডিও শুনে মনে হয় কুকুরের মতো শব্দ করছে প্রাণিটি। দৃশ্যমান এলাকা থেকে অডিও ধারণ করা হয়েছে ডেটনের অডিওতে। তবে তাতে মনে হয় এটা নেকড়েবিশেষ।

এ নিয়ে কি সাধারণ মানুষের ভয় পাওয়ার কোনো কারণ আছে? এ প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, অবশ্যই। এসব এলাকায় রয়েছে প্রাণি ও পোষা জীব। এখানে ভাল্লুকের মতো একটি দু’পায়ের প্রাণি দেখা গেছে। এসবই শিকারির লক্ষণ। জোডি কুক ওই প্রাণিটির বিষয়ে কিছু ছবি ধারণ করেছেন। তা দেখে মনে হয় এগুলো ওই প্রাণির। একটি ছবিতে কিছু গাছের ভিতর রহস্যময় অন্ধকারাচ্ছন্ন একটি কিছুকে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা যায়। এর পায়ের ছাপের যে ছবি ধারণ করা হয়েছে, তার সঙ্গে অন্য কোনো প্রাণির পায়ের ছাপের মিল পাওয়া যায় না। এখানে ওখাবে পাওয়া গেছে মৃত প্রাণি।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

2 × 1 =

আরও পড়ুন