রিয়েলমি নিয়ে এল বিশ্বের সবচেয়ে দ্রুত ম্যাগনেটিক ওয়্যারলেস চার্জিং ‘ম্যাগডার্ট’

fec-image

সম্প্রতি, তরুণ প্রজন্মের পছন্দের ব্র্যান্ড রিয়েলমি বাজারে এনেছে অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোনের মধ্যে সর্বপ্রথম ম্যাগনেটিক ওয়্যারলেস চার্জিং সল্যুশন ‘ম্যাগডার্ট’। ম্যাগনেটিক ওয়্যারলেস চার্জিং, ইকোসিস্টেমে নেতৃত্ব দিতে ৩ আগস্ট ম্যাগনেটিক ইনোভেশন ইভেন্টের মাধ্যমে বৈশ্বিক বাজারে সল্যুশনটি উন্মোচন করে রিয়েলমি।

এ সল্যুশনে রয়েছে বিশ্বের দ্রুততম ৫০ ওয়াট ম্যাগনেটিক ওয়্যারলেস চার্জার, ম্যাগনেটিক ওয়্যারলেস চার্জিং সাপোর্টেড প্রথম অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোন রিয়েলমি ফ্ল্যাশ ও অন্যান্য বেশ কিছু ম্যাগনেটিক চার্জিং পণ্য। ম্যাগডার্ট সল্যুশনটি ম্যাগনেটিক ওয়্যারলেস চার্জিংকে নতুন উচ্চতায় নিয়ে যাবে।

রিয়েলমির প্রথম কনসেপ্ট ফোন ‘রিয়েলমি ফ্ল্যাশ’ এ রয়েছে ৪৫০০ মিলি অ্যাম্পিয়ার আওয়ার ক্ষমতার ব্যাটারি। ম্যাগডার্ট ওয়্যারলেস চার্জিং এর ৫০ ওয়াট এর সাহায্যে এই ব্যাটারি মাত্র ৫ মিনিটে ০ থেকে ২০ শতাংশ এবং মাত্র ৫৪ মিনিটে সম্পূর্ণ চার্জ দেওয়া সম্ভব।

৫০ ওয়াট ম্যাগডার্ট চার্জারে একটি সক্রিয় এয়ার কুলিং সিস্টেম রয়েছে, যা চার্জ দেওয়ার সময় তাপমাত্রা অনুকূলে রাখে এবং দীর্ঘ সময় উচ্চ স্তরে চার্জিং পাওয়ার বজায় রাখে। অন্যদিকে, ১৫ ওয়াট ম্যাগডার্ট চার্জারটি মাত্র ৩.৯ মিলিমিটার পুরু যা বিশ্বের সবচেয়ে পাতলা ওয়্যারলেস ম্যাগনেটিক চার্জার; এটি তাপ উৎপাদন কমাতে ও দীর্ঘ হাই-পাওয়ার চার্জিং সময় প্রদানে সক্ষম।

রিয়েলমির এই ইনোভেশন ইভেন্টে ম্যাগডার্ট পাওয়ার ব্যাংক ও একটি বিশেষ চার্জিং বেসও উন্মোচন করা হয়েছে। একসাথে এই দুটি স্মার্ট সল্যুশন ভার্টিক্যাল চার্জিং স্টেশন হিসেবে ব্যবহার করা যেতে পারে। চলতি পথে চার্জ দিতে চাইলে রিয়েলমির ম্যাগডার্ট পাওয়ার ব্যাংক স্মার্টফোনের সাথে সংযুক্ত করে চার্জ দেওয়া যাবে।

এছাড়া, ম্যাগডার্টের সাথে অন্যান্য স্মার্ট সল্যুশনও লঞ্চ করা হয়েছে। পোর্ট্রেট ফটোগ্রাফির জন্য রয়েছে ম্যাগডার্ট বিউটি লাইট। সিনেমা দেখার সময় বা ভিডিও কল করার সময় ফোনকে ধরে রাখার জন্য ম্যাগডার্ট ওয়ালেটকে কিকস্ট্যান্ড হিসেবে ব্যবহার করা যাবে। রিয়েলমি জিটি ম্যাগডার্ট চার্জিং কেস; ম্যাগডার্ট টেকনোলজিতে রিয়েলমি জিটি-কে চার্জিং সমর্থন করবে।

প্রতিনিয়ত রিয়েলমি বিশ্বব্যাপী তরুণ ব্যবহারকারীদের জন্য লিপ-ফরওয়ার্ড প্রযুক্তি নিয়ে আসছে। তাই আগামী ৩ বছরের মধ্যে তরুণ ব্যবহারকারীদের কাছে ১০ কোটি ফাইভ জি ফোন সরবরাহের লক্ষ্যে, তরুণদের পছন্দের ব্র্যান্ড রিয়েলমি ৫জি পণ্যের এক বিস্তৃত পোর্টফলিও তৈরিতে কাজ করছে। রিয়েলমি তাদের উন্নত ‘১+৫+টি’ কৌশলের সাথে এআইওটি ২.০ বিকাশের পর্যায়ে প্রবেশ করেছে। এর ফলে সাশ্রয়ী মূল্যের ৫জি ফোন ছাড়াও রিয়েলমি আরও বেশি এআইওটি পণ্য তরুণ ক্রেতাদের জন্য বাজারে নিয়ে আসবে। ৫জি প্রযুক্তির অধিগ্রহণ প্রক্রিয়াকে ত্বরান্বিত করতে এবং সবার জন্য ৫জি নিশ্চিত করতে রিয়েলমি আগামী দিনে আরও অনেকগুলো স্মার্ট ডিভাইস বাজারে নিয়ে আসবে।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

seventeen − one =

আরও পড়ুন