শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে বাঁচা-মরার লড়াইয়ে বাংলাদেশ

fec-image

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে বাঁচা-মরার লড়াইয়ে মুখোমুখি হচ্ছে বাংলাদেশ। তামিমদের সামনে দ্বিতীয় ওয়ানডেটি জয়ের বিকল্প নেই। তাই ম্যাচটি জিততে দলগত পারফরম্যান্সের তাগিদ দিয়েছেন ভারপ্রাপ্ত কোচ খালেদ মাহমুদ সুজন। কলম্বোর প্রেমাদাসা স্টেডিয়ামে রবিবার বাংলাদেশ সময় বেলা তিনটায় শুরু হবে ম্যাচটি। যা সরাসরি সম্প্রচার করবে গাজী টেলিভিশন ও মাছরাঙা টেলিভিশন।

বিশ্বকাপের মতো সিরিজের প্রথম ম্যাচে বাংলাদেশকে সবচেয়ে বেশি ভুগিয়েছে ফিল্ডিং। বাজে ফিল্ডিংয়ের খেসারত হিসেবেই বেশি রান তুলতে পেরেছে স্বাগতিকরা। সেই সঙ্গে ভূতুড়ে ব্যাটিংতো ছিলই। সাকিবের অবর্তমানে মিরাজ-মোসাদ্দেক বোলিংয়ের দায়িত্বটা ঠিকমতো পালন করতে পারেননি। টপ অর্ডারে তামিম ও সৌম্য ব্যর্থ হওয়াতে শুরুতেই ছিটকে যেতে হয়েছে লাল-সবুজ জার্সিধারীদের। এসব কিছু ভুলে দলের ভারপ্রাপ্ত কোচ খালেদ মাহমুদ সুজন জয়ে ফিরতে মরিয়া।

শনিবার ম্যাচের আগের দিন সংবাদ মাধ্যমকে তিনি বলেছেন, ‘ম্যাচ হারলে সবারই খারাপ লাগে, ছেলেদেরও তেমনি ভালো লাগেনি। তবে আমাদের সুযোগ আছে। একটা ম্যাচ শেষ হয়েছে, আরও দুটি ম্যাচ বাকি আছে। অবশ্যই আমরা ম্যাচটা জিততে চাই। আমি বিশ্বাস করি আমাদের যোগ্যতা না থাকলে উত্তরটা দিতাম না। আমরা সিরিজে ফিরব।’

কোনও সিরিজের প্রথম ম্যাচটি হারলে পরের ম্যাচে একাদশে পরিবর্তন আসাটা স্বাভাবিক। তবে এ ম্যাচে দলে কোন পরিবর্তন আসার সম্ভাবনা ক্ষীণ। ভারপ্রাপ্ত কোচ খালেদ মাহমুদ সুজন তেমন ইঙ্গিতই দিয়েছেন।
একই মাঠ প্রেমাদাসায় খেলা হবে। তাই কন্ডিশনে কোনও পরিবর্তন আসছে না। গত ম্যাচের মতোই শুরুতে উইকেট ব্যাটিং সহায়ক থাকবে। সমুদ্রের পাশের শহর বলে কলম্বোতে উইকেট পরের দিকে আস্তে আস্তে ধীরগতির হবে। যার ফলে দ্বিতীয় ইনিংসে বলভাবে ব্যাটে আসে না। তাই টসে জিতলে দুই দলই আগে ব্যাট করতে চাইবে। সেই হিসেবে টস জেতাটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

এদিকে তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম ম্যাচটি শ্রীলঙ্কার পেসার লাসিথ মালিঙ্গার বিদায়ী ম্যাচ ছিল। ওই ম্যাচে শুরুতেই মালিঙ্গা বাংলাদেশ দলের তামিম-সৌম্যকে ফিরিয়ে ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ এনে দিয়েছিলেন লঙ্কানদের হাতে। দ্বিতীয় ম্যাচে তার না থাকা নিশ্চিতভাবেই তামিমের দলকে আত্মবিশ্বাস যোগাবে।
তার ওপর অধিনায়ক হিসেবে প্রথম ম্যাচে ব্যর্থ হলেও দ্বিতীয় ম্যাচে জয়ে ফিরতে চান তামিম। সতীর্থদের ওপর আস্থা রেখে মাঠের কাজটা ঠিকমতো করাই লক্ষ্য তামিমের। প্রথম ম্যাচ হেরে এমন কথাই বলেছিলেন বাংলাদেশের সেরা ওপেনার।

এদিকে খালেদ মাহমুদ মনে করেন, প্রথম ম্যাচের ব্যাটিং-বোলিংয়ের শুরুর দিকে দুর্বলতার পাশাপাশি বাজে ফিল্ডিংয়ে সমস্যা কাটিয়ে উঠতে পারলে বাংলাদেশ জিততে পারবে। এই মুহূর্তে বাংলাদেশি ক্রিকেট ভক্তরা সেই অপেক্ষাতেই আছেন। বিশ্বকাপের দগদগে ক্ষত ভুলতে লঙ্কানদের বিপক্ষে সিরিজ জয়ের বিকল্প নেই। আর সেই কাজটি করতে হলে আজকে যে জিততেই হবে তামিমের দলকে!

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: খালেদ মাহমুদ সুজন, গাজী টেলিভিশন, মাছরাঙা টেলিভিশন
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

five × one =

আরও পড়ুন