আইনজীবীরা আদালতের অপরিহার্য অংশ

fec-image

কক্সবাজারের জেলা ও দায়রা জজ খোন্দকার হাসান মো. ফিরোজ বলেন, আইনজীবীরা হচ্ছেন আদালতের অপরিহার্য অংশ। একটি বাইসাইকেলের যেমন দু’টি চাকা রয়েছে, আদালতেরও তেমনি দু’টি চাকা রয়েছে। একটি চললেই আরেকটি চলে। একটি চাকা কখনো একা একা চলতে পারেনা। আর আদালত ও আইনজীবীর মধ্যে সম্পর্ক হলো বাইসাইকেলের দু’টি চাকার মতোই।

আইনজীবীরা আইন ও বিধি বিধান আদালতের সামনে তুলে ধরে আদালতকে সহযোগিতা করে থাকেন। একজন আইনজীবী শুধু পেশা হিসাবে বেছে নিয়ে কখনো আইন পেশায় আসেনা। পেশার পাশাপাশি নিজেকে একজন মানবাধিকার কর্মী ও আইনের শাসনের বাহক হিসাবে নিজেকে প্রতিষ্ঠা করে। তাই যেকোন আইনজীবীর স্মৃতিকে স্থায়ীভাবে ধরে রাখা এবং তার কর্মময় জীবনকে মূল্যায়ন করা সকলের দায়িত্ব ও কর্তব্য। এতে নবীনেরা অনুপ্রাণিত হবে এবং প্রবীণেরা মূল্যায়িত হবে।

কক্সবাজার জেলা আইনজীবী সমিতির মরহুম সাবেক সভাপতি এডভোকেট আমজাদ হোসেন, এডভোকেট নুরুল কবির ও এডভোকেট ফাহিমা আক্তারের স্মরণে প্রকাশিত স্মারক প্রদানকালে কক্সবাজারের জেলা ও দায়রা জজ খোন্দকার হাসান মো. ফিরোজ একথা বলেন।

তিনি বলেন-একজন আইনজীবী হচ্ছে, সমাজের দর্পন। তাই তাদের জীবনীকে স্থায়ীভাবে ধরে রাখতে এ উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। টেকসই ও মজবুতভাবে বাঁধাই করা ও মনোরম, নান্দনিক ডিজাইনে মাল্টিকালার প্রিন্টে ছাপানো এবং জেলা ও দায়রা জজ খোন্দকার হাসান মো. ফিরোজের স্বাক্ষরে প্রদত্ত এই পৃথক পৃথক জীবনী স্মারকে মরহুম আইনজীবী ত্রয়ের বর্ণাঢ্য জীবনী সাজানো রয়েছে শ্রুতিমধুর ও কাব্যিক ভাষায়।

মরহুম আইনজীবীদের পরিবারের সদস্যদের এরকম জীবনী স্মারক প্রদান কক্সবাজার জেলা জজ আদালত ও কক্সবাজার আইনজীবী সমিতির ইতিহাসে সর্বপ্রথম। কক্সবাজারের জেলা ও দায়রা জজ খোন্দকার হাসান মো. ফিরোজের কার্যালয়ে মঙ্গলবার (৬ আগস্ট) বিকেলে জেলা ও দায়রা জজ খোন্দকার হাসান মো. ফিরোজের কাছ থেকে মরহুম এডভোকেট আমজাদ হোসেনের পক্ষে এ জীবনী স্মারক গ্রহণ করেন-মরহুমের সহধর্মিণী ফিরোজা আমজাদ, জ্যৈষ্ঠ সন্তান এডভোকেট হোসেন রাফাত ফিরোজ, কনিষ্ঠ সন্তান শিক্ষানবিস এডভোকেট হোসেন সাজিদ জয় ও মরহুমের স্বজন এডভোকেট রবিউল হাসান টিটু।

মরহুমা এডভোকেট ফাহিমা আক্তারের পক্ষে তার স্বামী বদিউল আলম ও কন্যা সিদরাতুল মুনতাহা তন্নী।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: অপরিহার্য, আইনজীবীরা, আদালতের
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

1 × two =

আরও পড়ুন