কুতুপালংয়ে স্বশস্ত্র রোহিঙ্গাদের প্রকাশ্যে অস্ত্রের মহড়া, বাড়ি ও সিএনজি ভাংচুর

fec-image

উখিয়ার কুতুপালং বাজারে শতশত স্বশস্ত্র রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীরা প্রকাশ্যে অস্ত্র উচিয়ে মহড়া সহ দফায় দফায় হামলা করেছে। চাঁদার দাবীতে উগ্রপন্থী রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীরা স্থানীয় বসত বাড়িতে ব্যাপক লুটতরাজ সহ ৮টি সিএনজি ভাংচুর চালায়। সোমবার (২৮ সেপ্টেম্বর) দুপুরে এ ঘটনা সংঘটিত হয়েছে।

এদিকে রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী কর্তৃক অস্ত্র উঁচিয়ে সিএনজি অফিসে হামলার প্রতিবাদে তাৎক্ষণিক প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে সিএনজি সমিতি ও স্থানীয় গ্রামবাসী। সমাবেশে অবিলম্বে চিহ্নিত রোহিঙ্গা সন্ত্রসীদের গ্রেপ্তারের দাবি জানানো হয়। বর্তমানে এ ঘটনায় টান টান উত্তেজনা বিরাজ করছে। ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়ন করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন উখিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ।

স্থানীয় গ্রামবাসী জাফর আলম ও শ্রমিক নেতারা অভিযোগ করে জানান, গত ১৮ সেপ্টেম্বর দুপুর ২টার দিকে করিম এন্টারপ্রাইজ নামক সিএনজি যাত্রী নিয়ে ১৭ নাম্বার রোহিঙ্গা ক্যাম্পে যায়। মুচড়ার টেক নামক স্থানে রাস্তার পাশে গাড়িটি রেখে চালক চা খেতে একটি দোকানে যায়, এসে দেখে সিএনজি গাড়িটি নেই। গাড়িটির খোঁজ নিতে সম্ভাব্য বিভিন্ন জায়গায় খবরাখবর নিয়ে জানতে পারেন কুতুপালং রেজিস্ট্রোর্ড ক্যাম্পের ই ব্লকের, শেড নং-২, এমআরসি নং-৬১২৫১ এর আশ্রিত রোহিঙ্গা নুরুচ্ছালামের ছেলে মো. ইউসুফ, তার ছেলে মো. ফয়সাল নিয়ে গিয়ে অজ্ঞাত স্থানে লুকিয়ে রেখেছে।

গাড়ীর মালিক কুতুপালং বাজার এলাকার নাজির হোসেনের ছেলে জাফর আলম তাদের নিকট গাড়ি ফেরত চাইলে ৪ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে। চাঁদার টাকা দিতে অনিহা প্রকাশ করলে রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী মাস্টার মুন্নার, ইউসুফ ও ফায়সালের নেতৃত্বে ৫০/৬০ জনের সংঘবদ্ধ স্বশস্ত্র সন্ত্রাসী রোহিঙ্গারা ¯হানীয় জাফর আলমের বাড়িতে হানা দিয়ে ব্যাপক ভাংচুর ও লুটপাট করে।

শুধু তাই নয় সোমবার দুপুরে রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীরা কচুবনিয়া সিএনজি শ্রমিক অফিসে এসে চেয়ার টেবিল ভাংচুর করে। প্রকাশ্য দিবালোকে আগ্নেয়াস্ত্র, রড, লাটিসোটা, দা, কিরিচ নিয়ে শ্রমিক নেতা ছৈয়দ হোছন, গাড়ীর মালিক জাফর আলমকে প্রাননাশের হুমকি দিয়ে চলে যাওয়ার সময় ৬টি সিএনজি ও কচুবনিয়ায় শ্রমিকদের অফিস ভাংচুর করেছে। এতে ৬/৭ লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে শ্রমিক নেতারা দাবি করেছে।

ঘটনায় জড়িত স্বশস্ত্র রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার, তাদের হেফাজতে থাকা অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার, আটকিয়ে রাখা সিএনজি উদ্ধার, ভাংচুর করা গাড়ি, বাড়ির মালামাল লুটপাটের ক্ষতিপুরণ দাবি করে তাৎক্ষণিক প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়। কুতুপালং কচুবনিয়া রাস্তার মাথা শ্রমিক অফিসের সামনে অনুষ্ঠিত প্রতিবাদ সভায় বক্তব্য রাখেন উখিয়া সিএনজি, মাহিন্দ্রা, অটোরিকশা, টমটম চালক শ্রমিক সমবায় সমিতির সভাপতি মাসুদ আমিন শাকিল, সহসভাপতি ছৈয়দ হোছন, শ্রমিক নেতা মো. হোসেন, কামাল উদ্দিন সহ বিভিন্ন শ্রমিক সংগঠনের নেতারা।

শত-শত শ্রমিকদের উপস্থিতে প্রতিবাদ সভাটি বিক্ষোভ মিছিলে রুপ নেয় এতে শ্রমিকরা বিক্ষোভে ফেটে পড়েন। উখিয়ার শাহপরীর দ্বীপ হাইওয়ে পুলিস ফাঁড়ির এএস আই মতিউর রহমান জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনা হয়েছে।

উখিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ আহমদ সঞ্জুর মোরশেদ জানান, সংঘটিত ঘটনা নিয়ন্ত্রণসহ পুলিশ আইনশৃঙ্খলা স্বাভাবিক রাখতে কাজ করে যাচ্ছে।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ten + six =

আরও পড়ুন