কুতুবদিয়া লেমশীখালীতে নববধূকে নির্যাতন

fec-image

কুতুবদিয়ায় শ্বশুড়-শাশুড়ি ও দেবরের অমানুষিক নির্যাতনের শিকার হয়েছে নববধূ আমেনা বিবি । দুই দফা মারধর করে তাকে ঘরে তালাবদ্ধ করে রাখারও অভিযোগ পাওয়া গেছে। পরে স্থানীয় মেম্বার ও গ্রাম পুলিশ গিয়ে ওই গৃহবধূকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় চিকিৎসক জেলা সদর হাসপাতালে রেফার করেন। গত রবিবার (১৩ ডিসেম্বর) রাত ৮টায় মতির বাপের পাড়ায় এ ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, লেমশীখালীর ৭নং ওয়ার্ড মতির বাপের পাড়ার শাকের উল্লাহর পুত্র সাইফুল ইসলাম (২২)’র সাথে উত্তর কৈয়ারবিল ১নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা আলী আজগরের মেয়ে আমেনা বিবির বিয়ে হয় মাত্র ৪মাস আগে। বিয়ের ১মাস পর শাশুড়ি স্বর্ণ কেড়ে নেয়ার ঘটনাকে কেন্দ্র করে ইতিপূর্বে দেড়মাস বাপের বাড়ীতে ছিলেন হতভাগা আমেনা বিবি।

পরে কৈয়ারবিল ইউপি চেয়ারম্যান জালাল আহমদ, ইউপি মেম্বার কবির হোছাইন বাদশাহ, শাহাব উদ্দিন, লেমশীখালীর দু’ইউপি মেম্বার নাজেম উদ্দিন ও গিয়াস উদ্দিনের মধ্যস্থতায় সুখের আশায় শ্বশুড় বাড়ি যান আমেনা বিবি। যেদিন শ্বশুর বাড়ি গিয়েছিল সে রাতেই শ্বশুর-শাশুড়ীর নির্যাতনের শিকার হন আমেনা বিবি।

অভিযোগে প্রকাশ, পুত্রের ব্যবসায় পূঁজি খাটানোর দাবীতে বিয়ের পর থেকে ৩ লাখ টাকার যৌতুক দাবি করছিলেন নির্যাতিত নববধূর স্বামীর পরিবার। আমেনা বিবিকে নির্যাতনের বিষয়টি উদ্ধার করতে যাওয়া স্থানীয় ইউপি মেম্বার নাজেম উদ্দিন, গিয়াস উদ্দিন ও চৌকিদার মনু নিশ্চিত করেন।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

5 × one =

আরও পড়ুন