খাগড়াছড়িতে সেভেন মার্ডারের একবছর; শেষ হয়নি তদন্ত, আসামিরা এখনও অজ্ঞাত

fec-image

২০১৮ সালের ১৮ আগস্ট খাগড়াছড়ি সদরের স্বণির্ভর বাজার ও পেরাছড়ায় পৃথক সংগঠিত সেভেন মার্ডারের একবছরেও তদন্ত শেষ করতে পারেনি পুলিশ। জীবনের ঝুঁকি ও বিচারে দীর্ঘসূত্রিতার কারণে এমন নির্মম হত্যাকান্ডের ঘটনায় পরিবার ও সংগঠনের কেউ মামলার বাদীও হয়নি। অজ্ঞাত ১৫-২০ জনকে আসামি করে পুলিশের করা হত্যা মামলার তদন্ত করছে চট্টগ্রাম বিভাগের পিবিআই।

খাগড়াছড়ির পুলিশ সুপার আহমার উজ্জামান বলেন, এ ঘটনায় নিহতদের স্বজনরা বাদি না হওয়ায় পুলিশের উপ পরিদর্শক গৌতম চন্দ্র দে বাদি হয়ে অজ্ঞাত ১৫-২০ জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করে। খাগড়াছড়ি জেলা পুলিশ থেকে অধিকতর তদন্তের স্বার্থে মামলাটি চট্টগ্রাম পিবিআই এ প্রেরণ করা হয়। বর্তমানে মামলাটি তদন্তাধীন।

খাগড়াছড়ির জেলা প্রশাসক মো. শহিদুল ইসলাম বলেন, প্রশাসনের গঠিত ৫ সদস্যের তদন্ত কমিটির প্রতিবেদনে আঞ্চলিক সংগঠনগুলোর অভ্যন্তরীণ কোন্দলে এই হত্যাকান্ড হয়েছে বলে জানানো হয়েছে। ভবিষ্যতে এই ধরণের ঘটনা রোধে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সক্ষমতা বৃদ্ধি, দূর্গম এলাকায় সড়ক নির্মাণসহ ৫ টি সুপারিশ করা হয়। যার অধিকাংশ বাস্তবায়নের কাজ প্রক্রিয়াধীন ও কিছু চলমান।

উল্লেখ্য, ২০১৮ সালের ১৮ আগস্ট সকালে খাগড়াছড়ি সদরের স্বণির্ভর বাজারে ইউপিডিএফ প্রসীত গ্রুপের এক বিক্ষোভ সমাবেশের প্রস্তুতিকালে সন্ত্রাসীরা গুলি ছুঁড়ে। সেখানে ৬ জন ঘটনাস্থলে ও একজন দূরে পালানোর সময় পড়ে গিয়ে আঘাত পেয়ে মারা যায়। এ ঘটনায় ইউপিডিএফ প্রসীত গ্রুপ সমর্থিত পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ খাগড়াছড়ি শাখার তৎকালীন সভাপতি তপন চাকমাসহ সংগঠনের ৪ নেতাকর্মী নিহত হয়। নিহত বাকি ৩ জন ছিল সাধারণ মানুষ।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

9 − 6 =

আরও পড়ুন