গ্রামে বাড়ি ও ধর্মীয় স্থাপনা নির্মাণে লাগবে অনুমতি

fec-image

রোডম্যাপ, সারাদেশের সাড়ে চার হাজার ইউনিয়ন পরিষদ এলাকার জন্য সমন্বিত পথনকশা (রোডম্যাপ) প্রণয়ন করছে সরকার। এই রোডম্যাপ প্রণয়নের আগে কোথাও কোনো ধর্মীয় স্থাপনা বা বাড়ি নির্মাণ করতে হলে সংশ্লিষ্টদের ইউনিয়ন পরিষদ থেকে অনুমতি বা ছাড়পত্র নিতে হবে।

জাতীয় সংসদ ভবনে বৃহস্পতিবার (২৫ মার্চ) অনুষ্ঠিত স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির বৈঠকে এ সুপারিশ করা হয়েছে।

সংসদীয় কমিটির সূত্র জানিয়েছে, সারাদেশে ইউনিয়ন পরিষদের আওতাধীন এলাকাকে একটি পরিকল্পনার আওতায় আনতে একটি রোডম্যাপ প্রণয়নের উদ্যোগ নিয়েছে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়। এই রোডম্যাপ প্রণয়ন করার আগে কোনো ব্যক্তি চাইলেই যত্রযত্র কোনো ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান বা বসতভিটা বা কোনো স্থাপনা নির্মাণ করতে পারবে না। যদি কোনো ব্যক্তি কোনো স্থাপনা করার প্রয়োজনীয়তা অনুভব করেন- সেক্ষেত্রে ইউনিয়ন পরিষদের অনুমতি নেয়ার সুপারিশ করেছে সংসদীয় কমিটি।

সূত্র থেকে আরও জানা যায় যে, এর আগে সংসদীয় কমিটির পরামর্শ অনুযায়ী স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয় থেকে সমন্বিত পথনকশা প্রণয়নে একটি প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়। সরকারের এই সিদ্ধান্ত সঠিকভাবে যাতে অনুসরণ করা হয় সেজন্য সংসদীয় কমিটির পক্ষ থেকে তাগিদ দেয়া হয়। একইসঙ্গে ইতোপূর্বে গৃহীত সিদ্ধান্তসমূহ দ্রুততম সময়ে মধ্যে বাস্তবায়নের জন্য বলা হয়।

এদিকে ‘আমার গ্রাম আমার শহর’ এর কার্যক্রম বাস্তবায়নের হালনাগাদ তথ্য কমিটির আগামী বৈঠকে প্রজেকশনের মাধ্যমে উপস্থাপনের জন্য বলা হয়েছে।

স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি খন্দকার মোশাররফ হোসেনের সভাপতিত্বে বৈঠকে কমিটির সদস্য মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম, মো. মসিউর রহমান রাঙ্গা, রেবেকা মমিন, মো. শাহে আলম, মো. ছানোয়ার হোসেন ও আব্দুস সালাম মুর্শেদী এবং সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

five × five =

আরও পড়ুন