Notice: Trying to get property 'post_excerpt' of non-object in /var/www/vhosts/parbattanews.com/httpdocs/wp-content/themes/artheme-parbattanews/single.php on line 53

Notice: Trying to get property 'guid' of non-object in /var/www/vhosts/parbattanews.com/httpdocs/wp-content/themes/artheme-parbattanews/single.php on line 55

চাঞ্চল্যকর ৪ হত্যা মামলায় আরো ১ জন গ্রেফতার

Bandarban pic-5.6.2015
স্টাফ রিপোর্টার:
বান্দরবানের কুহালং ইউনিয়নের ক্যামলং পাড়া এলাকার একটি খামার বাড়িতে একই পরিবারের চারজনকে জবাই করে হত্যার অভিযোগে মো.আব্দুল মোনাফ (২৮) নামে আরো একজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, চট্টগ্রামের দোহাজারির বার্মা কলোনিতে শুক্রবার (৫ জুন) সকালে অভিযান চালিয়ে নিহতের শ্যালক আব্দুল মোনাফকে গ্রেফতার করে।

এর আগে গত ৩০ মে চট্টগ্রামে পটিয়া বার্মিজ কলোনী থেকে মূল পরিকল্পনাকারী হিসেব নুর বাহারকে আটক করা হয়। এ নিয়ে চাঞ্চল্যকর এই হত্যাকান্ডে সরাসরি জড়িত থাকার অভিযোগে এ পর্যন্ত দুই জনকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

এদিকে গ্রেফতারে পর পুলিশকে নুর বাহার জানিয়েছে, নিহত মোহাম্মদ আমিনের সঙ্গে ছয় বছর আগে নুরুন্নাহারের বিয়ে হয়। মোহাম্মদ আমিনের তৃতীয় স্ত্রী নুরুন্নাহার, তিন বছরের ছেলে লালু, প্রথম স্ত্রীর ছেলে জোনায়েদ, বড় বোন বেগম বাহার, তার ছেলে মো. হামিদ ও ইলিয়াস একটি ঘরে এক সঙ্গে বসবাস করতো। এক সময় খামারবাড়ির কেয়াটেকার গোপালের সঙ্গে আমিনের তৃতীয় স্ত্রী নুরুন্নাহারের মধ্যে অসামাজিক কার্যকলাপ দেখে ফেলায় আমিন তার স্ত্রীকে মারধর করে এবং তাকে খুন করে ফেলার হুমকি দিয়েছিল ।

এ বিরোধের জের ধরে এক সময়ে শ্বশুর দিল মুহাম্মদ, ন্ত্রী নুরুন্নাহার ও তার বড় বোন নুর বাহারকে দা দিয়ে কুপিয়ে আহত করে আমিন।

এ ঘটনার জের ধরে ছোট বোনের স্বামী মোহাম্মদ আমিন, তার বোন ও ছেলেদের হত্যা করার পরিকল্পনায় অংশ নেয় নুর বাহারের ভাই আবদু শুক্কুর, আবদুল মোন্নাফ ও নুর আমিন।

গত ২৮ মে পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী ধারলো দা দিয়ে রাত ৮টার দিকে মোহাম্মদ আমিন, তার বড় বোন বেগম বাহার, আমিনের প্রথম ন্ত্রীর সন্তান জোনায়েদ ও বেগম বাহারের চার বছরের সন্তান মো. ইলিয়াসকে কুপিয়ে হত্যা করে।

বান্দরবান সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইমতিয়াজ আহমেদ জানান, আমরা এ হত্যাকান্ডের সাথে জড়িতদের আইনের আওতায় আনার চেষ্টা করছি।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

1 × three =

আরও পড়ুন