টুয়াকের নির্বাচন কাল: ইশতেহারে চমক সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী টিটুর

fec-image

পর্যটনসেবী প্রতিষ্ঠান ট্যুর অপারেটস্ এসোসিয়েশন অব কক্সবাজার (টুয়াক) এর নির্বাচন আগামীকাল (৩১ আগস্ট) অনুষ্ঠিত হবে। মোটেল লাবনীতে সকাল ১০টায় ভোট গ্রহণ শুরু হয়ে শেষ হবে বিকাল ৪টায়।
বহু কাঙ্খিত এই নির্বাচনকে ঘিরে শুরু হয়েছে ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনা স্বাস্থ্যবিধি মেনে নির্বাচন আয়োজনের সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে কমিশন। সাধারণ সম্পাদক পদে একেএম মুনিবুর রহমান টিটু (ফুটবল) এর প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী হলেন আসাফ উদ দৌলা আশেক (কম্পিউটার)।

একেএম মুনিবুর রহমান টিটু ব্লু-বীচ ট্যুরিজম এর স্বত্ত্বাধিকারী এবং বাহারছরা যুব উন্নয়ন সমবায় সমিতি লিমিটেডের সাধারণ সম্পাদক। টুয়াকের বর্তমান কমিটির যুগ্ম সম্পাদক হিসেবে তিনি বেশ যোগ্যতা ও দক্ষতার পরিচয় দিয়েছেন। সব মিলিয়ে তাকে সাধারণ সম্পাদক হিসেবে হিসেবে আনছে ভোটাররেরা।

এদিকে, সাধারণ সম্পাদক পদে নির্বাচিত হলে কি কি করবেন; সংগঠন পরিচালনার কৌশল কি, এসব তুলে ধরে ইশতেহার পেশ করেছেন একেএম মুনিবুর রহমান টিটু।

সোমবার (৩০ আগস্ট) দুপুরে শহরের একটি আবাসিক হোটেলের সম্মেলন কক্ষে টুয়াকের সকল সদস্য ও সাংবাদিকদের সামনে  তিনি ইশতেহার ঘোষণা দেন।

অনুষ্ঠানে এ.কে.এম মুনিবুর রহমান টিটু বলেন, আমি আপনাদের মুনিবুর রহমান টিটু৷ আপনাদের ভাই; বন্ধু, স্নেহ ও ভালবাসার মুনিবুর রহমান টিটু। টুয়াক আমার পরিচিতি। টুয়াক আমার প্রাণ। সদস্যরা আমার প্রেরণা; টুয়াক আস্থার ঠিকানা। টুয়াক আমার গৌরব, পথচলার সাহস। আমার তারুণ্য, যৌবন এবং জীবনের সোনালী সময়টুকু কেটেছে আপনাদের ভালবাসা স্নেহ, মমতায়।

সংগঠনের উন্নয়নে নিজেকে বিলিয়ে দেওয়ার প্রকৃতিজাত স্বভাব থেকে আমি সাধারণ সম্পাদক পদে নির্বাচনে অংশ নিচ্ছি৷ এ নির্বাচনে বিভিন্ন পদে যারা প্রতিদ্বন্দ্বীতা করেছেন তাদের সবাইকে আমার পক্ষ থেকে অভিনন্দন৷ আমার নির্বাচনি প্রতিক ফুটবল৷ স্বপ্নের সংগঠন গড়তে ফুটবল মার্কায় আপনাদের মূল্যবান ভোট প্রদান করে আমাকে একটি বার আপনাদের প্রতিনিধি হওয়ার সুযোগ দেন৷ আগামীর অগ্রযাত্রা আপনাদের সাথী হয়ে সবসময় পাশে থাকতে চাই৷

টিটু বলেন, আমার প্রিয় সহযোদ্ধা এস. এ কাজল সাধারণ সম্পাদক পদে আমার প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন। বিগত কমিটিতে আমরা দু’জনই যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক পদে দায়িত্ব পালন করেছি৷ প্রিয় সংগঠনকে এগিয়ে নিয়ে যেতে আমার ও আমার সহযোদ্ধা এস.এ কাজলের লক্ষ্য উদ্দেশ্য ও স্বপ্ন একই হওয়ায় চলমান নির্বাচনে আমরা একই সাথে কাজ করতে অঙ্গীকারাবদ্ধ। সংগঠনের বৃহৎ স্বার্থে আমার প্রিয় সহযোদ্ধা এস এ কাজল আমাকে ফুটবল প্রতিকে সমর্থন দিয়েছেন। আমি তার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি৷ সাধারণ সম্পাদক পদে এটি আমার প্রথম ও শেষ নির্বাচন।

উল্লেখ্য, পরবর্তী নির্বাচনে আমি আমার প্রিয় সহযোদ্ধা এস এ কাজলকে সাধারণ সম্পাদক পদে নির্বাচন করার ক্ষেত্রে সার্বিক সহযোগিতা করবো- এই বলে ইশতেহার পেশ করেন এ.কে.এম মুনিবুর রহমান টিটু।

এ সময় টুয়াকের ফাউন্ডের চেয়ারম্যান এম.এ হাসিব বাদল, প্রধান উপদেষ্টা মুফিজুর রহমান মুফিজ, সভাপতি পদপ্রার্থী তোফায়েল আহমেদ, এসএম কিবরিয়া খান, আনোয়ার কামালসহ প্রার্থী, ভোটার ও শুভানুধ্যায়ীরা উপস্থিত ছিলেন।

এ.কে.এম মুনিবুর রহমান টিটুর নির্বাচনী ইশতেহার:
১। টুয়াক ফাউন্ডার চেয়ারম্যানসহ সকল ফাউন্ডার সদস্যবৃন্দের বাৎসরিক সম্মানি প্রদান৷ সদস্যদের চিকিৎসা ভাতা ও মৃত্যুকালীন ভাতা প্রদানের নিশ্চয়তা প্রদান৷

২। স্বল্পসময়ের মধ্যে নিজস্ব স্থায়ী টুয়াক কার্যালয় স্থাপন৷ টুয়াক সদস্যদের প্রাণের দাবি যথাযথ কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে সংগঠনের নিবন্ধন প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা৷

৩। অতীতের সকল অনিয়ম বাতিল করে, সংগঠনের যাবতীয় আয় ব্যায় ও সংগঠনের মাসিক/বাৎসরিক হিসেব নিকাশে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করা৷

৪। সংগঠনে সকল সদস্যের সমান অধিকার নিশ্চিত করা৷

৫। সংগঠনের স্ব-স্ব দ্বায়িত্বশীলদের নিজ দায়িত্বপালনে সার্বিক সহযোগিতা ও স্বাধীন মত প্রকাশের পরিবেশ সৃষ্টি করা৷

৬। দেশের প্রতিটি পর্যটন স্পটে টুয়াক সদস্যদের জন্য ব্যবসা সম্প্রসারণ করার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা৷

৭। হোটেল মোটেল গেস্ট হাউস, জাহাজ, বাসসহ সকল স্টক হোল্ডারদের সাথে আলোচনা সাপেক্ষে সদস্যদের ন্যায্য সুযোগ সুবিধা নিশ্চিত করা৷

৮। পর্যটন মৌসুম শেষ হওয়ার পর সদস্যদের জন্য বিকল্প কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করা৷

৯। সংগঠন সারা বাংলাদেশে বিকশিত করার স্বার্থে দেশের প্রতিটি পর্যটন স্পটে শাখা কমিটি গঠন করা হবে৷

১০। কক্সবাজার পার্বত্য বান্দরবান এ বসবাসরত রাখাইনসহ সকল ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্টী ও তাদের কৃষ্টি- সংস্কৃতি, সভ্যতা উপস্থাপনের প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহান করা৷

অনুষ্ঠানে সুন্দর ইশতেহার উপস্থাপনের জন্য এ.কে.এম মুনিবুর রহমান টিটুকে সবাই ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।

অনুষ্ঠানে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ছিল বেশ উপভোগ্য। সবশেষে সবাইকে দুপুরের খাবারের নিমন্ত্রণ করেন সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী এ.কে.এম মুনিবুর রহমান টিটু৷

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

seventeen − 11 =

আরও পড়ুন