থানচিতে পুষ্টিযুক্ত শাক সবজি চাষের জন্য নগদ অর্থ বিতরণ

fec-image

বান্দরবানে থানচিতে ৯৩০ জন হত দরিদ্র কৃষক পেল ৭ লক্ষ ৪৪ হাজার টাকা নগদ। কৃষকদের ঘরের আঙিনায় পুষ্টিযুক্ত শাক-সবজি রোপন চাষীদের হাতে সবজি বীজ ক্রয়ের প্রতি পরিবারকে ৮ শত টাকা করে তুলে দিলেন রেমাক্রী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মুইশৈথুই মারমা

গত ২৯ অক্টোবর থেকে ১৩ নভেম্বর সম্প্রতিককালে বড় মদক বাজার ও রেমাক্রী বাজার প্রাঙ্গনের এই টাকা সরাসরি কৃষকদের হাতে তুলে দেয়া হয়েছে বলে সংশ্লিষ্টরা স্থানীয় সাংবাদিকদের তথ্য দিয়েছে।

সংশ্লিষ্টদের সূত্রে জানা যায়, প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণা ২০২১ সালে টেকসই উন্নয়ন গোল্ড (এসডিজি-১০) এর আওতায় আনার লক্ষ্যে সরকারি বেসরকারি সংস্থা অক্লান্ত শ্রমের বিনিময়ে তৃণমূলে কাজ করে যাচ্ছে। সে লক্ষে জনপ্রতিনিধি সরকারি সংস্থা ও বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা সমন্বয়ের মাধ্যমে বান্দরবানে থানচি উপজেলা ৪টি ইউনিয়নের প্রায় ৪ হাজার ৬৩জন নিন্মবিত্ত হত দরিদ্র পরিবারকে কৃষি, স্বাস্থ্য, সঞ্চয়, দুর্যেোগ মোকাবেলা, মার্কেটিং ৭টি প্রকল্পের অর্ন্তভূক্ত করে এক যোগে বাস্তবায়ন করে যাচ্ছে।

দাতা সংস্থা ইউনাইটেড ষ্ট্রেট এজেন্সি ইন্টারন্যাশনাল ডেভলপমেন্ট (Usaid) অর্থায়নে এনজিও সংস্থা হেলেন কেয়ার ইন্টারন্যাশনালকে প্রতি বছরে ৩.৫ মিলিয়ন ডলার যা বাংলাদেশের মূদ্রা প্রায় আড়াইশত কোটি টাকা অনুমোদন দেন। দাতা সংস্থার দেয়া অর্থ দিয়ে প্রকল্প বাস্তবায়নের হেলেন কেয়ার ইন্টারন্যাশনাল লোকাল এনজিও সংস্থা গ্রাম উন্নয়ন সংস্থা (গ্রাউজ)কে নিয়োগ করেন। গ্রাউজ থানচি উপজেলা ২০১৭ সালের ১৭ ই এপ্রিল হতে বাস্তবায়নে কাজ করে যাচ্ছে।

এরই ধারাবাহিকতায় কৃষি প্রকল্পের অর্ন্তভূক্ত কৃষকদের ঘরের আঙিনায় পুষ্টিযুক্ত শাক-সবজী চাষের উপর প্রশিক্ষণ শেষ করে চাষীদের নিজ হাতে বীজ ক্রয়ের সম্প্রতিক কালে রেমাক্রী ইউনিয়নের ৭ লক্ষ ৪৪ হাজার তিন্দু ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মংপ্রুঅং মারমার মাধ্যমে প্রায় ৮ শ জন কৃষকদের হাতে প্রায় সাড়ে ৬ লক্ষ টাকা তুলে দেয়া হয়েছে বলে এনজিও সংস্থা গ্রাম উন্নয়ন সংস্থা (গ্রাউজ) এর স্যাপলিং প্রকল্পের থানচি উপজেলা কো- অর্ডিনেটর মংউচিং মারমা স্থানীয় সাংবাদিকদের এ তথ্য দিয়েছে।

মংউচিং মারমা আরও জানান, হেলেন কেয়ার ইন্টারন্যাশনাল এই প্রকল্পের কাজ সরাসরি ২০১৪-১৫-১৬ তিন বছর করে আসছিল । থানচি উপজেলা ২১৭টি ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী পাড়ায় উচ্চবিত্ত, মধ্যবিত্তদের বাদ দিয়ে নিন্মবিত্ত অর্থাৎ হত দরিদ্র ৪ হাজার ৬৩ পরিবারকে এই প্রকল্পের আওতায় আনা হয়েছে।

থানচি সদর ও বলিপাড়া ইউনিয়নের বাকি পরিবারগুলিকে একই প্রকল্পের আওতায় পর্যায়ক্রমে দেয়া হবে। তিনি আরও জানান বাধ্যতামূলক পুষ্টিযুক্ত শাক-সবজি বীজ ক্রয় করতে হবে বিতরণকৃত টাকা দিয়ে শর্ত সাপেক্ষে এই টাকা গুলি দেয়া হয়েছে।

সাম্প্রতিক ১৩ নভেম্বর সকাল ১০টা বড় মদক বাজার প্রাঙ্গনের শর্ত সাপেক্ষে টাকা বিতরণ অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন গ্রাউজ স্যাপলিং প্রকল্পের কো-অর্ডিনেটর মংউচিং মারমা। রেমাক্রী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মুইশৈথুই মারমা প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে কৃষকদের হাতে টাকা তুলে দেয়া হয়। এই সময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন হেলেন কেয়ার ইন্টারন্যাশনাল এর জেলা ফোকাল পারশান ডঃ অংসাজাই মারমা ও রেমাক্রী ইউনিয়নের ইউপি মেম্বারসহ গন্যমান্য ব্যাক্তিরা।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: টেকসই উন্নয়ন গোল্ড, পুষ্টিযুক্ত শাক-সবজি
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

sixteen − five =

আরও পড়ুন