দু’শিশু শিক্ষার্থীর মৃত্যুর ঘটনায় কোয়ান্টাম’র বিরুদ্ধে মামলা

fec-image

লামার সরইয়ে দু’শিশু শিক্ষার্থী নিহতের ঘটনায় কোয়ান্টাম কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে হত্যার অভিযোগ এনে মামলা দায়ের করেছেন নিহত শ্রেয় মোস্তাফিজ নামের এক শিক্ষার্থীর অভিভাবক। বুধবার (৯জুন) দুপুরের পর লামা থানায় তিনি এই মামলা দায়ের করেন। মামলায় কোয়ান্টাম ফাউন্ডেশন কর্তৃপক্ষের পাশাপাশি কোয়ান্টাম কসমো স্কুল অ্যান্ড কলেজ কর্তৃপক্ষ এবং স্কুলের আবাসিকের তত্ত্বাবধায়কগণকে আসামি করেছেন। লামা থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. আলমগীর হোসেন এই খবর নিশ্চিত করেন।

এই মামলার অভিযোগে উল্লেখ করা হয়, গত ৭ জুন সোমবার বিকাল সাড়ে তিনটার দিকে কোয়ান্টাম কসমো স্কুল অ্যান্ড কলেজের কর্মকর্তা মো. ইমতিয়াজ মোবাইল ফোনে জানান, এদিন বেলা এগারটার দিকে স্কুলটির ষষ্ঠ শ্রেণির দুই শিশু শিক্ষার্থী শ্রেয় মোস্তাফিজুর রহমান (১১) এবং আব্দুল কাদের জিলানী (১২) খেলতে গিয়ে মারা গেছে। তিনি জানান, স্কুলের আবাসিকের এই শিক্ষার্থী বৃষ্টির মধ্যে স্কুলের মাঠেই খেলছিলো। তবে টানা বৃষ্টির কারণে সৃষ্ট পাহাড়ি ঢলের স্রোতে ভেসে গিয়ে স্কুলের পার্শ্ববর্তী পানি নিষ্কাষণের পাইপের ভেতর আটকা পরে। পরে সেখানেই তাদের দুজনের মৃত্যু হয়।

এই ঘটনায় কোয়ান্টাম ফাউন্ডেশন কর্তৃপক্ষ, কোয়ান্টাম কসমো স্কুল অ্যান্ড কলেজ কর্তৃপক্ষ এবং স্কুলটির আবাসিকের তত্ত্বাবধায়কগণের স্কুলের শিক্ষার্থীদের প্রতি চরম অবহেলা ও দায়িত্ব গাফিলতিকে দায়ি করেন মামলার বাদি।

উল্লেখ্য : ৭জুন বেলা ১১টার দিকে লামার সরই ক্যায়াজুপাড়ার ঢেঁকিছড়া খালে ভাসতে থাকা কোয়ান্টাম কসমো স্কুল অ্যান্ড কলেজের দু’শিশু শিক্ষার্থীর শ্রেয় মোস্তাফিজুর রহমান (১১) এবং অপরজন আব্দুল কাদের জিলানী (১২) লাশ উদ্ধার করে স্থানীয় জনতা। এরমধ্যে শ্রেয় মোস্তাফিজ ঠাকুরগাঁও পৌরসভার ৫নং ওয়ার্ডের বুলবুল মোস্তাফিজের ছেলে এবং আব্দুল কাদের চাপাইনবাবগঞ্জ সদরের রাণীহাট চকবহরম গ্রামের রজব আলীর ছেলে। তারা দু’জনই কোয়ান্টাম ফাউন্ডেশন পরিচালিত কোয়ান্টাম কসমো স্কুল অ্যান্ড কলেজেরে ষষ্ঠ শ্রেণির আবাসিকের ছাত্র।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

twelve − 5 =

আরও পড়ুন