নির্বাচন কমিশন আইন সংশোধনের দাবিতে স্মারকলিপি প্রদান

fec-image

ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে প্রতিটি ওয়ার্ডে মেম্বার পদে দুইজন প্রতিদ্বন্দ্বীর একজন কোন কারণে নিহত হলে অপর প্রার্থীকে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হওয়ার আইন সংশোধনের দাবিতে রাঙামাটির কাপ্তাইয়ে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করেছে কাপ্তাই ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ

মঙ্গলবার (১ নভেম্বর) সকাল সাড়ে ১১টায় কাপ্তাই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুনতাসির জাহানের মাধ্যমে কাপ্তাই উপজেলার ৪নং কাপ্তাই ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের দলীয় প্যাডে প্রায় ৫শ জনের স্বাক্ষরিত এক স্মারকলিপি প্রধানমন্ত্রীর বরাবর দেয়া হয়। একইসাথে প্রধান নির্বাচন কমিশনার ও নির্বাচন কমিশনের সচিবকে অনুলিপি প্রদান করা হয়েছে।

কাপ্তাই উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অংসুইছাইন চৌধুরী এবং কাপ্তাই উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মফিজুল হকের নেতৃত্বে এই স্মারকলিপি প্রদান করা হয়।

স্মারকলিপিতে উল্লেখ করা হয়, ২০২১ সালের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চতুর্থ ধাপের ঘোষিত তফসিল মোতাবেক বছরের ২৬ অক্টোবর ২০২১ মনোনয়ন পত্র প্রত্যাহারের শেষ দিন এবং ১১ নভেম্বর ভোট গ্রহণের তারিখ নির্ধারণ ছিল। তফসিল অনুযায়ী কাপ্তাই উপজেলার ৪নং কাপ্তাই ইউনিয়ন পরিষদের ৫নং ওয়ার্ডের দুবারের বিপুল ভোটে নির্বাচিত ইউপি সদস্য সজিবুর রহমান সজিব ও ইমান আলী মনোনয়ন জমা দেন। মনোনয়ন পত্র জমা দেওয়ার পর থেকেই ইমান আলী তার প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী সজিবুর রহমান সজিবকে মনোনয়ন পত্র প্রত্যাহারের জন্য নানাভাবে চাপ প্রয়োগ করতে থাকেন। সর্বশেষ মনোনয়ন পত্র প্রত্যাহারের শেষ দিন ২৬ অক্টোবর সজিবুর রহমান সজিব মনোনয়ন পত্র প্রত্যাহার না করায় ওই দিন রাতে কাপ্তাই নতুনবাজার এলাকা সজিবকে হত্যা করা হয়। এ ঘটনায় ৩২ জনের বিরুদ্ধে একটি মামলা করা হয়।

পরবর্তীতে কাপ্তাই উপজেলা নির্বাচন কমিশন ওই ওয়ার্ডের ভোট গ্রহণ স্থগিত করলেও সজিব হত্যা মামলার ২নং আসামি ইমাম আলী জামিনে বেরিয়ে আসে। পরে নির্বাচন কমিশন তাকে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় ৫নং ওয়ার্ডের মেম্বার হিসাবে ঘোষণা করেন। যা কাপ্তাই উপজেলাবাসীদের হতবাক করেছে। আমরা এই আইনের বাতিল চাই।

স্মারকলিপি প্রদানকালে উপস্থিত ছিলেন কাপ্তাই উপজেলা আওয়ামী লীগেরসহ সভাপতি ও ৪নং কাপ্তাই ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান প্রকৌশলী আবদুল লতিফ, চন্দ্রঘোনা ইউপি চেয়ারম্যান আক্তার হোসেন মিলন, ওয়াগ্গা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান চিরনজীত তনচংগ্যা, কাপ্তাই উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সাগর চক্রবর্তী, কাপ্তাই উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান ও উপজেলা যুবলীগের সভাপতি নাছির উদ্দীন, কাপ্তাই ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আকতার আলম প্রমুখ।

স্মারকলিপি প্রদান শেষে কাপ্তাই উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অংসুইছাইন চৌধুরী সাংবাদিকদের জানান, আজকে আমরা এই কালো আইন বাতিলের দাবিতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর বরাবর স্মারকলিপি দিয়েছি। একটি ওয়ার্ডে ২ জন প্রার্থীর মধ্যে একজন সন্ত্রাসী কর্তৃক নিহত হলে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় অপর প্রার্থীকে নির্বচিত করার যে বিধান নির্বাচন কমিশনে আছে আমরা সেই আইনের বাতিল চাই।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন