পেকুয়ায় বোরকা পরিহিত সন্ত্রাসীদের গুলিতে পথচারীসহ আহত ২,  নিহত ১

fec-image

কক্সবাজারের পেকুয়ায় পূর্ব শত্রুতার জের ধরে সন্ত্রাসীদের গুলিতে গুলিবিদ্ধসহ ৩ জন হতাহত হয়েছে। ২ মে রাত ৮টায় উপজেলার মগনামা ইউনিয়নের ফুলতলা স্টেশনে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় উত্তোজিত জনতার হাতে সন্দেহবাজন ৫ জন কে আটক করা হয়, আটককৃতদেরকে পেকুয়া থানা পুলিশকে সোপর্দ করা হয়েছে।

মগনামা ইউনিয়নের আফজালিয়া পাড়ার রুস্তম আলীর পুত্র জয়নাল আবেদীন (৩৬), একই এলাকার মৃত নুরুন্নবীর পুত্র আলী আকবর(৩৮) পথচারী ও স্কুল ছাত্রী রিফা আক্তার। আহতদেরকে উদ্ধার করে পেকুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হলে আহত অবস্থা গুরুতর হওয়ায় জয়নাল ও আলী আকবরকে চট্টগ্রাম মেডিকেলে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। রাতেই আহতদেরকে চমেকে নিয়ে যাওয়ার সময় গুলিবিদ্ধ ব্যবসায়ী জয়নাল আবেদীনের মৃত্যু হয়।

তিনি আরও জানান, জয়নালের বুকে গুলি, মাথার পিছনে ও হাতে কোপ দেয়া হয়েছে। আলী আকবরকে বুকে গুলি করা হয়েছে। একই সাথে রিফা আক্তার নামে এক পথচারী স্কুল ছাত্রীকে কোপানো হয়েছে।

স্থানীয় ও প্রত্যক্ষদর্শীরা বলেন, রাত সাড়ে ৮টার দিকে ফুলতলা স্টেশনের আশুর দোকানের সামনে আফজালিয়া পাড়ার বদি আলমের ছেলে আবু ছৈয়দ ও লঞ্চঘাট এলাকার মৃত নুরুল হোছেনের ছেলে নেজাম উদ্দিন ছোটনের নেতৃত্বে সায়েদ, মোজাম্মেল, মোস্তাক, বুলু, আবুল কাশেম, আহমদ কবির, মকছুদ, নেছার, আবু হানিফ, শওকত আলম, জিয়াবুলসহ আরও ১০/১৫ জন সশস্ত্র হামলা করে জয়নাল আবেদীনের উপর। এতে ঘটনাস্থলে বুকে গুলিবিদ্ধ হয়ে জয়নাল আবেদীন মাটিতে লুটিয়ে পড়লে হামলাকারীরা এলোপাতাড়ি কুপিয়ে চলে যায়। জয়নালের সাথে থাকা আলী আকবরকেও গুলি করা হয়। স্থানীয়রা তাঁদের উদ্ধার করে পেকুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করালে কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. তাহমিদুল ইসলাম দুজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে প্রেরণ করেন।

ঘটনার পর পরই এলাকায় চরম উত্তোজনা বিরাজ করে। এদিকেই ঘটনার পর পরই অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ( সার্কেল) তৌফিকুল ইসলাম, পেকুয়া থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

উল্লেখ্য যে, চলতি বছরের এপ্রিল মাসে বারবাকিয়া ইউনিয়নের বুধামাঝির ঘোনা এলাকায় সন্ত্রাসীদের গুলিতে খুন হয় এক গৃহবধূ, এবং কিছুই দিন যেতে না যেতেই একই ইউনিয়নের ভারুয়াখালী এলাকায় ডাকাতের গুলিতে ডাকাত সর্দার নেজাম খুন, সর্বশেষ বোরকা পরিহিত সন্ত্রাসীদের গুলিতে খুন হয় মগনামার ব্যবসায়ী জয়নাল। এ নিয়ে থানা পুলিশের প্রতি জনমনে ক্ষোভ সৃষ্টি হয়েছে। এ নিয়ে উদ্বেগ উৎকণ্ঠা বিরাজ করছে ভুক্তভোগী পরিবারের মাঝে । অনেকই আবার বলেন পেকুয়ার আইনশৃংখলা পরিস্থতি দিনদিন চরম অবনতি হচ্ছে উল্লেখ করে ওসিকে দায়ী করেন।

এ ব্যাপারে পেকুয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাইফুর রহমান মজুমদার বলেন, এ ধরনের ঘটনায় জড়িতরা কোনভাবেই ছাড় পাবেনা। হামলাকারীদের ধরতে পুলিশ অভিযান চালাচ্ছে।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: গুলিবিদ্ধ, পেকুয়া, মৃত্যু
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

seven − one =

আরও পড়ুন