বাইশারীতে গর্জই খালের উপর ব্রিজ নির্মাণ; বদলে গেছে দশ গ্রামের জীবনমান

fec-image

বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার বাইশারী ইউনিয়নের ৮ নং ওয়ার্ড নারিঝবুনিয়া বটতলী বাজার সংলগ্ন গর্জই খালের উপর ব্রীজ নির্মাণ হওয়ায় পাল্টে গেছে দশ গ্রামের হাজারো মানুষের জীবন মান ও চিত্র।

বটতলী বাজার সভাপতি ও দারুল ইহসান কিন্ডারগার্ডেন একাডেমির ম্যানেজিং কমিটির সদস্য মোঃ বেলাল উদ্দিন জানান শুধু জীবন মানের চিত্র নয় ব্রীজ নির্মাণের ফলে প্রত্যন্ত এলাকায় বসকারী হাজার মানুষের ভাগ্যের আমুল পরিবর্তন এসেছে। স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসা পড়ুয়া ছাত্র ছাত্রীরা সহজেই বিদ্যালয়ে যাতায়ত এবং পাহাড়ে উৎপাদিত কৃষি পণ্যে আর পচন ধরেনা। কৃষকেরা প্রতিটি পণ্য গাড়ী যোগে দ্রুত বাজারজাত করে ন্যায্য মুল্যে বিক্রি করে অনেক লাভবান হচ্ছে।

তিনি আরো বলেন মাননীয় পার্বত্য মন্ত্রী বাবু বীর বাহাদুরের অবদানে আজ হাজার মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন হয়েছে। বটতলী বাজার সংলগ্ন দারুল ইহসান কিন্ডারগার্ডেন একাডেমীর প্রবীণ শিক্ষক আবদুল মাবুদ বলেন ব্রীজের পাশাপাশি সড়ক ও পাকা করণের ফলে একাডেমির কচিকাচা শিশু কিশোরেরা এখন সহজেই বিদযালয়ে আসতে পারে। বিগত দিনে ব্রীজটি না থাকায় অনেক শিক্ষার্থী খাল পেরিয়ে বিদ্যালয়ে আসা মুশকিল ছিল।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায় বাইশারী বাজার হতে তিন কিলোমিটার পুর্বে বটতলী বাজার সংলগ্ন গরজই খাল। পাহাড়ী খালটি বর্ষা মৌসুমে অনেক খরস্রোত। সহজেই খালের উপর দিয়ে যাতায়াত খুবই কঠিন। বর্ষা শুরু হলেই ব্রীজের ওপারের লোকজন দুশ্চিন্তায় জীবন যাপন করত। এখন আর সেই চিত্র নেই । পাল্টে গেছে পাহাড়ে বসবাসরত পাহাড়ি বাঙালিদের ভাগ্য।

এছাড়া বাইশারী বাজার হয়ে বাকখালী সড়কে দীর্ঘ আট কিলোমিটার সড়ক কার্পেটিং দারা উন্নয়ন হওয়ায় দুর্গম পাহাড়ে বসবাসকারী পাহাড়িদের উৎপাদিত পণ্য বিক্রি করে তারাও অধিক লাভবান হচ্ছে বলে জানালেন দৈয়ারবাপের মার্মা পাড়ার বাসিন্দা আচিং থোয়াই মার্মা।

নাইক্ষ্যংছড়ি এল জি ই ডি উপজেলা প্রকৌশলী তোফাজ্জল হোসেন ভুইয়া বলেন বাইশারী বটতলী বাজার সংলগ্ন গর্জই খালের উপর ব্রীজের কাজ প্রায় শেষের দিকে। আরো কিছু কাজ বাকী রয়েছে। তবে জনসাধারনের যাতায়তের সুবিধার্থে ব্রীজটি এখন খুলে দেওয়া হয়েছে।

তিনি আরো বলেন, ব্রীজের পর থেকে আরো আট কিলোমিটার সড়ক কার্পেটিং দ্বারা উন্নয়ন হবে। এতে জনসাধারণ আরও আশার আলো দেখবেন।

বাইশারী ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ আলম কোম্পানী বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রী বাবু বীর বাহাদুর মহোদয়ের আন্তরিকতায় বাইশারীতে রাস্তাঘাট, ব্রীজ, কালভার্ট, স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসা, মসজিদ, মন্দির, বৌদ্ধ বিহার, বিদ্যুৎসহ ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে। আগামীতেও এ উন্নয়নের ধারা অব্যাহত থাকবে।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

three − 1 =

আরও পড়ুন