বেপরোয়া হয়ে উঠেছে অপ্রাপ্ত বয়স্ক চালকরা

বাইশারী-ঈদগড় সড়কে টমটম দুর্ঘটনায় আহত-৩

fec-image

বাইশারী-ঈদগড় সড়কে ব্যাটারি চালিত টমটম দুর্ঘটনায় ২ নারী, ১ পুরুষ আহত হয়েছে। এদের মধ্যে ১ জনের অবস্থা আশংকাজনক।

প্রত্যক্ষদর্শী টমটম যাত্রী কুইমং চাক, থুইমাছিং চাক ও চিংনু চাক জানান, মঙ্গলবার (২১ জানুয়ারি) বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে ঈদগড় বাজারে ইউসিবি ব্যাংকে একাউন্ট করা শেষে নিজ বাড়ি বাইশারী আসার পথে সড়কের হাজিরপাড়া নামক স্থানে বেপরোয়া গতিতে গাড়ি চালাতে গিয়ে যাত্রীবাহি টমটমটি উল্টে খাদে পড়ে যায়।

ওই সময় টমটমে থাকা বাইশারী ইউনিয়নের মধ্যম চাক পাড়ার বাসিন্দা ক্যাচিমে চাক (২৮), নারিচবুনিয়ার বাসিন্দা সাবেকুন্নাহার (২৫), তুফান আলী পাড়ার বাসিন্দা এরশাদ (৩০) গুরুতর আহত হয়। আহতদের মধ্যে এরশাদের অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় বাইশারী বাজারে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে কক্সবাজর সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। অপর যাত্রীরা আংশিক আঘাতপ্রাপ্ত হলেও বর্তমানে সুস্থ রয়েছে। আহতদের মধ্যে ক্যাচিমে চাক ও সাবেকুন্নাহার এনজিওকর্মী, অপরজন দিনমজুর।

এদিকে দুর্ঘটনার খবর পেয়ে স্থানীয় লোকজন আহতদের উদ্ধার করার সময় টমটম চালক ঈদগড় ইউনিয়নের পানিস্যাঘোনা এলাকার বাসিন্দা রমজান আলমের পুত্র জসিম উদ্দিন (২৪) পালিয়ে যায়। টমটমটি জনতা উদ্ধার করে বাইশারী পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে হস্থান্তর করে।

বাইশারী তদন্ত কেন্দ্রের এএসআই রুবেল ধর জানান, ঘটনাটি ঘটেছে রামু থানার গর্জনীয়া ইউনিয়নের হাজির পাড়া এলাকায়। তবে টমটম গাড়ীটি আটক করা হয়েছে এবং আহতদের মধ্যে কেউ এ পর্যন্ত অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে রামু থানায় অভিযোগ করার পরামর্শ দেওয়া হবে।

উল্লেখ্য, গত এক সপ্তাহে উক্ত সড়কে বেশ কয়েকটি ব্যাটারি চালিত টমটম দুর্ঘটনায় অনেক যাত্রী আহত হয়েছে এবং গত বছরের মাঝামাঝি সময়ে টমটম দুর্ঘটনায় এক শিশু মৃত্যুবরণ করে। স্থানীয় লোকজনের অভিযোগ, একদিকে কাগজপত্র বিহীন ব্যাটারি চালিত টমটম, অপরদিকে টমটম চালকরা রয়েছে অধিকাংশ শিশু ও অল্প বয়স্ক। তাছাড়া এদের নেই কোন ধরনের প্রশিক্ষণ। মহাসড়কে টমটম চালানো নিষিদ্ধ হওয়ায় বর্তমানে সকল গ্রামীণ সড়ক গুলোতে অসংখ্য টমটম চালানো হচ্ছে। যার ফলে স্কুল-মাদ্রাসা শিক্ষার্থী সহ জনসাধারণের ভোগান্তি এখন চরমে। তাই গ্রামীণ সড়ক গুলোতেও টমটম চালানো নিষিদ্ধ করার দাবি জানিয়েছেন স্থানীয়রা।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

seventeen − eight =

আরও পড়ুন