বাঘাইছড়িতে সুপেয় পানির সংকট নিরসনে ৫ কোটি ৭০ লক্ষ টাকা ব্যয়ে স্থাপিত হচ্ছে ৫৭০টি গভীর নলকূপ

fec-image

রাঙামাটির বাঘাইছড়ি উপজেলায় চলতি বছর বৃষ্টিপাত কম হওয়ায় পানির স্তর নিচে নেমে খাল, বিল, ঝিড়ি ঝর্ণা, রিংওয়েল, টিউবওয়েল শুকিয়ে সুপেয় পানির তীব্র পানির সংকট দেখা দিয়েছে।

দেশের সবচেয়ে বড় উপজেলা (৭০৪ বর্গমাইল) বাঘাইছড়িতে বসবাসরত দেড় লক্ষাধিক মানুষের বিশুদ্ধ খাবার পানির সংকট নিরসনে ৫ কোটি ৭০ লক্ষ টাকা ব্যয়ে ৫শত ৭০টি ৪০০ ফুট করে গভীর নলকূপ স্থাপনের কাজ শুরু করে জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর বাঘাইছড়ি। এরই মধ্যে উপজেলার ৮টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভায় ৩০০টি গভীর নলকূপ স্থাপনের কাজ শেষ করে উপকারভোগীদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। আরও ২৭০টি গভীর নলকূপ স্থাপনের কাজও চলমান রয়েছে। এসব নলকূপের সাথে প্রয়োজনীয় একটি ১০০০ লিটার পানির ট্যাংক ও একটি উচ্চ ক্ষমতা সম্পন্ন সাবমারসিবল পাম্পও রয়েছে।

উপজেলা প্রকৌশল বিভাগ বলেছে, সবগুলো নলকূপ বসানো শেষ হলে বাঘাইছড়িতে পানির সংকট আর থাকবেনা।

এদিকে, পানির সংকট নিরসনে সরকারের এমন দ্রুত পদক্ষেপ গ্রহণে খুশি স্থানীয়রা। গ্রামবাসী অনেকেই বলেছেন- আগে বিভিন্ন ছড়া, ঝর্ণা থেকে পানি পান করলেও এখন গভীর নলকূপ থেকে বিশুদ্ধ পানি পান করতে পারবে তারা। ফলে তাদের স্বাস্থ্য ঝুঁকিও কমবে।

উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়ন ও পৌরসভা এলাকা ঘুরে নলকূপ পরিদর্শন ও পানি পান করে পরীক্ষা করে দেখেন উপজেলা পরিষদ ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল কাইয়ুম ও উপজেলা জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলী আব্দুর রাজ্জাক।

তিনি বলেন, বাঘাইছড়ি উপজেলায় আর পানির সংকট থাকবে না। আমরা দ্রুতগতিতে গভীর নলকূপ স্থাপনের কাজ শেষ করার চেষ্টা করছি এবং বিভিন্ন এলাকা পরিদর্শন করছি যাতে পানির সংকট নিরসন হয়।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

eighteen + 10 =

আরও পড়ুন