বান্দরবানে প্রবারণা পূর্ণিমা

fec-image

‘হিংসা, হানাহানি নয়, ছড়িয়ে দেই মৈত্রীর বার্তা’ এ স্লোগানে প্রবারণা পূর্ণিমা উপলক্ষে দেশ, জাতি, সকল প্রাণী এবং বিশ্বের শান্তি ও মঙ্গল কামনায় বান্দরবানে রবিবার সকালে বৌদ্ধ কল্যাণ পরিষদ এর যৌথ আয়োজনে মঙ্গল শোভাযাত্রা বের করা হয়েছে ।

বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীরা জানান, বৌদ্ধ ভিক্ষুসংঘের আত্মবিশ্লেষণাত্মক এবং অধিষ্ঠানমূলক শিক্ষাব্রতবিশেষ।

এ সময় ভিক্ষুরা বিধিবদ্ধ শিক্ষা ও একান্ত ধ্যান-সমাধির চর্চা করেন। এ ব্রত জীবনকে সত্যিকার মুক্তির পথে নিয়ে যায়। বুদ্ধের সময় থেকেই এ ব্রত পালিত হয়ে আসছে। বুদ্ধদেব স্বয়ং রাজগৃহে অবস্থানকালে ভিক্ষুসংঘের জন্য এই বর্ষাবাস বিধান প্রবর্তন করেন। বর্ষাবাস পালনের উদ্দেশ্য তৃণ-গুল্মাদির জীবন রক্ষা করা। বর্ষায় জলসিক্ত ও কর্দমাক্ত পথে ভ্রমণকালে জ্ঞাতে-অজ্ঞাতে সবুজ তৃণ, চারাগাছ এবং ক্ষুদ্র প্রাণী পদদলিত হওয়ার সমূহ সম্ভাবনা থাকে।

তাই বুদ্ধদেব এ সময়ে সর্বাধিক পরিভ্রমণ ত্যাগ করে নিজ নিজ বিহারে অবস্থানপূর্বক অনুশীলনমূলক ধর্মীয় বিষয়াদি (শীল, সমাধি ও প্রজ্ঞা) চর্চা করার বিধান দিয়েছেন। প্রবারণা পূর্ণিমার পরেরদিন থেকে মাসব্যাপী বিভিন্ন বৌদ্ধ বিহারে অনুষ্ঠিত হবে কঠিন চীবর দানোৎসব ৷

প্রবারণা পূর্ণিমা উপলক্ষে রবিবার সন্ধ্যায় দেশ ও জাতির মঙ্গল কামনায় ফানুস ঊড়ানো এবং হাজার প্রদীপ প্রজ্জ্বালন করা হবে ৷

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ten + 17 =

আরও পড়ুন