বান্দরবানে মেয়র ও কাউন্সিলর পদে নির্বাচিত হলেন যারা

fec-image

অপ্রীতিকর বা বিচ্ছিন্ন কোন ঘটনা ছাড়াই সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে সম্পন্ন হয়েছে বান্দরবান পৌর নির্বাচন। নির্বাচনে আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীক নিয়ে ৯ হাজার ৫৬১ ভোট পেয়ে দ্বিতীয় বারের মতো মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন মোহাম্মদ ইসলাম বেবী। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল-বিএনপির ধানের শীষ প্রতীকের মোহাম্মদ জাবেদ রেজা পেয়েছেন ৪ হাজার ৫৩৩ভোট।

এছাড়াও পার্বত্য চট্টগ্রাম নাগরিক পরিষদের নারিকেল গাছ প্রতিকের প্রার্থী মো. নাছির উদ্দিন ২হাজার ১৪৭, জাতীয় পার্টির লাঙ্গল প্রতিকের মো. শাহজাহান ৯৮৫ এবং মোবাইল ফোন প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী বিধান লালা পেয়েছেন ১৩২ভোট। ১৩টি কেন্দ্রের প্রতিটিতে জয় পেয়েছে নৌকা প্রতিকের প্রার্থী।

এদিকে রবিবার (১৪ফেব্রুয়ারি) সকাল ৮টায় ভোট শুরুর পর থেকে কেন্দ্রে কেন্দ্রে নারী ও পুরুষ ভোটারদের স্বতঃস্ফ‚র্ত অংশগ্রহণ ছিল চোখে পড়ার মত। দুপুরের দিকে ভোটারের উপস্থিতি কিছুটা কমলেও ২টার পর বাড়ে ভোটারের সংখ্যা। বিশেষ করে মহিলা ভোটার। তবে প্রথমবারের মতো ইভিএম-এ ভোট দিতে গিয়ে বয়ষ্ক অনেকে আঙ্গুলের ছাপ নিয়ে বেকায়দায় পড়েন।

এই নির্বাচনে আইন শৃঙ্খলা রক্ষায় পুলিশের পাশাপাশি র‌্যাব, বিজিপি, আনসারসহ সাদা পোশাকে গোয়েন্দা শাখার সদস্যরা নিয়োজিত ছিল। জুডিসিয়াল ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটসহ মোট ১১জন ম্যাজিস্ট্রেট ১৩টি কেন্দ্রের দেখভাল করেন।

নির্বাচনে ১নং ওয়ার্ড থেকে কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়েছেন নাছির উদ্দিন, ২নং ওয়ার্ডে মোহাম্মদ আলী, ৩নং ওয়ার্ডে অজিত কান্তি দাশ, ৪নং ওয়ার্ডে ওমর ফারুখ, ৫নং ওয়ার্ডে মং মং সিং, ৬নং ওয়ার্ডে সৌরভ দাশ শেখর, ৭নং ওয়ার্ডে মো. হারুন সরদার, ৮নং মো. কামরুল হাসান বাচ্চু এবং ৯নং ওয়াডে মো. সেলিম।

এছাড়াও সংরক্ষিত ১,২,৩নং ওয়ার্ডে দিপিকা রানী তংচংগ্যা, ৪, ৫, ৬ এমেচিং মারমা, ও ৭, ৮, ৯ ওয়াডে শাহানারা আক্তার বেসরকারিভাবে কাউন্সির নির্বাচিত হয়েছেন।

উল্লেখ্য, বান্দরবান পৌর নির্বাচনে মোট ভোটার ছিল ২৯ হাজার ৭২৯ জন। ১৩টি কেন্দ্রে ৮১ জন সহকারী প্রিজাইডিং অফিসার ও ১৬২ জন পোলিং এজেন্ট দায়িত্ব পালন করেছেন।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

15 + 5 =

আরও পড়ুন