বান্দরবানে শুভ বুদ্ধ পূর্ণিমা পালন

fec-image

বান্দরবানে বোধিবৃক্ষে পানি উৎসর্গের মাধ্যমে উৎসাহ উদ্দীপনা ও ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে পালিত হচ্ছে বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের ধর্মীয় উৎসব (বৈশাখী পূর্ণিমা) বুদ্ধ পূর্ণিমা।

শনিবার (১৪ মে) সকালে বোমাং সার্কেলে চীফ রাজার পুত্র মং ওয়ে প্রু (বনি) নেতৃত্বে শহরের জাদিপাড়া রাজবাড়ি প্রাঙ্গণ থেকে মঙ্গল শোভাযাত্রা বের হয়ে প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে রাজগুরু বৌদ্ধ বিহারের এসে শেষ হয়।

এ সময় শত শত নারী-পুরুষ, দায়ক-দায়িকা, উপ-উপাসীকাবৃন্দ চন্দনের পানি ও ফুল নিয়ে অংশ গ্রহণ করেন। শোভাযাত্রা শেষে প্রার্থনা ও বোধি বৃক্ষমূলে চন্দন জল সিঞ্চনের মধ্য দিয়ে দিনটি পালন করা হয়। পরে বিহারের সমবেত হয়ে পঞ্চমশীল গ্রহণ এবং দেশ ও জাতীর উদ্দেশ্যে মঙ্গল কামনা করেন। এ সময় ধর্ম দেশনা দেন রাজগুরু বৌদ্ধ বিহারে বিহারাধ্যক্ষ ভদন্ত কেতু মহাথের। প্রার্থনা শেষে বিহারের বোধি বৃক্ষে (অশ্বথ বৃক্ষ), চন্দন জল (পবিত্র জল) ঢালেন।

এ ছাড়াও জেলার বিভিন্ন উপজেলাতেও অত্যন্ত জাঁকজমকপূর্ণভাবে পালিত হচ্ছে বুদ্ধ পূর্ণিমা।

এ দিকে যে কোন ধরনের সন্ত্রাসী হামলা ঠেকাতে বান্দরবানের বৌদ্ধ বিহারগুলোতে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে।

সন্ধ্যায় প্রদীপ পূজা, হাজারবাতি উৎসর্গ ও বাংলাদেশের উন্নতি, সমৃদ্ধি এবং বিশ্ব শান্তি কামনায় পাশাপাশি ধর্মদেশনা দিয়ে দেশবাসী ও সকল প্রাণীর মঙ্গল কামনায় প্রার্থনা করা হবে।

উল্লেখ্য যে, বৌদ্ধ ধর্মের প্রবর্তক গৌতম বুদ্ধের জন্ম, বুদ্ধত্ব লাভ ও মহাপরিনির্বাণ এই ত্রি-স্মৃতি বিজড়িত বুদ্ধ পূর্ণিমা। তাই বৌদ্ধদের জন্য দিবসটি অত্যন্ত তাৎপর্যময়।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

4 + eleven =

আরও পড়ুন