মহালছড়িতে উপসর্গ ছাড়া ২ করোনা রোগী শনাক্ত, রোগীরা সুস্থ আছেন

fec-image

খাগড়াছড়ির মহালছড়িতে সর্বপ্রথম করোনাভাইরাস জনিত কোন উপসর্গ ছাড়া ২ করোনা রোগী শনাক্ত হয়। ২ জন করোনা রোগীর মধ্যে একজন মনাটেক গ্রামের ২৪ বছরের পুরুষ আর একজন ক্যায়াংঘাট গুচ্ছগ্রামের ৫৫ বছর বয়সী এক নারী।

মহালছড়ি উপজেলা স্যানিটারী ইন্সপেক্টর সুরেশ চাকমা বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

মনাটেক গ্রামের যে লোকটির করোনা শনাক্ত হয়েছে সে গত ১৯ এপ্রিল ঢাকার সাভার হতে নিজ বাড়িতে আসেন। সেখান থেকে আসার পর ২১ দিন প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে অবস্থান করার সময়ে গত ২৭ এপ্রিল তাঁর নমুনা সংগ্রহ করা হয় এবং গত ১০ মে কোরেন্টিনের মেয়াদ শেষ হয়।

সুস্থ হিসেবে ১১ মে মহালছড়ি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে তাকে ছাড়পত্রও দেওয়া হয়। ছাড়পত্র দেয়ার ১ দিনের ব্যবধানে অর্থাৎ বুধবার (১৩ মে) তাঁর করোনাভাইরাস পজেটিভ আসে।

রোগীর পরিবারের সাথে এবং স্থানীয়দের মাধ্যমে জানা যায়, তিনি সুস্থ অবস্থায় নিজ পরিবারের জমির পাকা ধান তোলার কাজে ব্যস্ত সময় পার করছেন।

ক্যায়াংঘাট গুচ্ছগ্রাম হতে ৫৫ বছর বয়সী যে মহিলার শরীরে করোনাভাইরাস পজেটিভ রিপোর্ট পাওয়া গেছে সে মহিলাটি গত ২০ বছর যাবত হাঁপানি রোগে ভুগছেন। শাসকষ্ট জনিত রোগ নিয়ে সে গত ২৭ এপ্রিল মহালছড়ি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নিতে আসলে তাঁর নমূনা সংগ্রহ করা হয়।

নমুনা সংগ্রহের ১৫ দিন পর বুধবার (১৩ মে) তার করোনা ভাইরাসের পজেটিভ রিপোর্ট আসে।

স্থানীয় ইউপি সদস্য মো. আলমগীর জানান, মহিলাটির কোন করোনাভাইরাসের উপসর্গ নেই এবং তিনি সম্পূর্ণ সুস্থ আছেন।
মহালছড়ির ২জন করোনাভাইরাস শনাক্ত হওয়ার বিষয়টি নিয়ে মহালছড়ি উপজেলা নির্বাহী অফিসার প্রিয়াংকা দত্ত বলেন, করোনা ভাইরাস শনাক্ত হওয়া ব্যক্তিদের দ্বিতীয় বার নমুনা সংগ্রহ করে পূনরায় পরীক্ষাগারে পাঠানো হবে। আতঙ্কিত না হয়ে সবাইকে স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলার আহ্বান জানান তিনি।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: করোনাভাইরাস, মহালছড়ি, স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

twelve + nineteen =

আরও পড়ুন