মাটিরাঙ্গায় সেনাবাহিনীর ১ মিনিটের ঈদ বাজার, অসহায়দের মুখে উচ্ছাসের হাসি

fec-image

করোনাভাইরাস মহামারীতে প্রান্তিক জনগোষ্ঠির মানুষের হাঁসফাঁস অবস্থা। ঈদ করা নিয়ে যখন কর্মহীন মানুষের মধ্যে চরম উদ্বেগ-উৎকন্ঠা তখন অসহায়, দু:স্থ ও কর্মহীন হ‌য়ে পড়া নিম্ন আ‌য়ের মানুষের মুখে উচ্ছাস ছড়িয়ে দিয়েছে মাটিরাঙ্গা সেনা জোনের ‘এক মিনিটের ঈদ বাজার’। নামে ঈদ বাজার হলেও এটি ছিল মানুষের মাঝে ঈদের আনন্দ ছড়িয়ে দিতে সেনাবাহিনীর এক‌টি সমাজ সেবামুলক উদ্যোগ।

শুক্রবার (২২ মে) সকালের দিকে মাটিরাঙা সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠে ‘এক মিনিটের ঈদ বাজার’র উদ্বোধন করেন মাটিরাঙ্গা জোন অধিনায় লে. কর্নেল নওরোজ নিকোশিয়ার, পিএসসি-জি।

এ সময় অন্যান্যের মধ্যে মাটিরাঙ্গা জোনেরর উপ-অধিনায়ক মেজর মো. মঞ্জুরুল কবীর, জোনাল স্টাফ অফিসার মেজর আরিফুর দৌলা ও জোন এ্যাডজুটেন্ট ক্যাপ্টেন তানভীর প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

গুইমারা রিজিয়নের সহযোগিতায় এবং মাটিরাঙ্গা জোনের ব্যবস্থাপনায় মাটিরাঙ্গা সসরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে আয়োজিত এক মিনিটের ঈদ বাজারে টেবিলের উপর থরে থরে সাজানো চাল, আটা, ছোলা, তৈল, লবণ, সুজি, চিনি ও নুডুলসহ ঈদের পণ্য সংগ্রহ করেছেন আগতরা। সাথে সবাই নিয়ে গেছেন ঈদের নতুন শাড়ি ও লুঙ্গী।

উদ্বোধন শেষে মাটিরাঙ্গা জোন অধিনায় লে. কর্নেল নওরোজ নিকোশিয়ার, পিএসসি-জি সাংবাদিকদের বলেন, করোনাভাইরাস সারা বাংলাদেশেও ছড়িয়ে পড়েছে। করোনাভাইরাসের সংক্রমণরোধে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে সেনাবাহিনী দিন-রাত কাজ করে যাচ্ছে। তারই ধারাবাহিকতায় গুইমারা রিজিয়নের সার্বিক তত্ত্বাবধানে মাটিরাঙ্গা জোন ব্যতিক্রমী এ বাজারের মাধ্যমে নিম্ন আয়ের মানুষের মাঝে ঈদের আনন্দ ছড়িয়ে দেয়ার উদ্যোগ নিয়েছে। সেনাবাহিনী ভবিষ্যতেও সাধারণ মানুষের পাশে থাকবে বলেও জানান তিনি।

প্রসঙ্গত, সোমবার (১৮ মে) খাগড়াছড়ির মাটিরাঙ্গায় অসহায়, দু:স্থ ও কর্মহীন হ‌য়ে পড়া নিম্ন আ‌য়ের মানুষকে বিনামূল্যে খাবার পৌঁছে দি‌তে ‘এক মিনিটের বাজার’ নামে এক ব্যতিক্রমী বাজারের আয়োজন করে মাটিরাঙ্গা জোন।

মাটিরাঙা সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠে ‘এক মিনিটের বাজার’র উদ্বোধন করেন গুইমারা বিজিয়ন কমান্ডার বিগ্রেডিয়ার জেনারেল মোহাম্মদ শাহরিয়ার জামান। নামে বাজার হলেও এটি ছিল সেনাবাহিনীর এক‌টি জনসেবামূলক উদ্যোগ।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: করোনাভাইরাস, মাটিরাঙ্গা, সেনাবহিনী
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

2 × four =

আরও পড়ুন