বান্দরবানে সেনা রিজিয়নের তত্ত্বাবধানে মুজিব বর্ষ উপলক্ষে ঈদ উপহার বিতরণ

fec-image

পবিত্র ঈদ-উল-ফিতর উপলক্ষে মেজর জেনারেল এস এম মতিউর রহমান, ওএসপি, এএফডব্লিউসি, পিএসসি, জিওসি ২৪ পদাতিক ডিভিশন ও এরিয়া কমান্ডার চট্রগ্রাম এরিয়া এর নির্দেশে বান্দরবানের প্রত্যন্ত অঞ্চলে অবস্থিত এতিম ও দুস্থ শিশুদের মাঝে ঈদ উপহার বিতরণ করা হয়েছে।

শনিবার (২৩ মে) সকালে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর নামে বান্দরবান সেনা রিজিয়নের তত্ত্বাবধানে এই ঈদ সামগ্রী বিতরণ করা হয়।

এ সময় বান্দরবান সেনা রিজিয়ন এর কর্মকর্তা মেজর ইফতেখার এবং লে. রেজওয়ান‘সহ অন্যান্য সেনাসদস্য উপস্থিত ছিলেন।

সেনাসদস্যদের কাছ থেকে জানা যায়, এতিম ও দুস্থ শিশুদের সাথে ঈদ আনন্দ ভাগাভাগি করার উদ্দেশ্যে জিওসি, ২৪ পদাতিক ডিভিশন এর নির্দেশনায় উক্ত উপহার সামগ্রী বিতরণ করা হয়।

এছাড়াও বান্দরবান এর চড়ুইপারা, বালাঘাটা, অরুন সারকী টাউন হলের মাঠ, কালেক্টরেট স্কুল মাঠ‘সহ শহরের আশেপাশে বিভিন্ন পাড়ায় শাড়ি, লুঙ্গি এবং ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করা হয়।

উল্লেখ্য যে বান্দরবানে মানবতার সেবায় কাজ করে যাচ্ছে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী। পাহাড়ি-বাঙালি সকল ভেদাভেদ ভুলে গরিব-দুঃখী কর্মহীন অসহায় মানুষের মাঝে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করে যাচ্ছে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী বান্দরবান শাখা।

এছাড়াও এক মিনিটের বাজারসহ বিভিন্ন ব্যতিক্রমধর্মী কার্যক্রম গ্রহণের মাধ্যমে সকল বান্দরবানবাসীর জন্য নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী বান্দরবান সেনা রিজিয়ন ও জোন।

করোনার ভয়াবহ পরিস্থিতিতে বান্দরবানে সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে সকল মানুষের ঘরে ঘরে ত্রাণ সামগ্রী ও ঈদ উপহার পৌঁছে দেওয়া হচ্ছে। পার্বত্য অঞ্চলে সকল মানুষজন সেনাবাহিনীর এই কার্যক্রমকে সাধুবাদ জানিয়েছে ।

বান্দরবানে যেকোন দুর্যোগপূর্ণ মুহূর্তে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী সবসময় সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়ে এক উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে। তাই সকল বান্দরবানবাসী সেনাবাহিনীর এই কার্যক্রমকে সাদরে গ্রহণ করে অভিনন্দন জানিয়েছেন। ভবিষ্যতেও বাংলাদেশ সেনাবাহিনী সকল বান্দরবানবাসীর পাশে থেকে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়ে বান্দরবানের সকল রকম উন্নতি ও সমৃদ্ধি তে কাজ করে যাবে বলে সকলের আশা।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

fifteen − five =

আরও পড়ুন