রাইখালীতে স্বামী ও তার আত্বীয়-স্বজনের হুমকিতে পালিয়ে বেড়াচ্ছে জোসনা

fec-image

কাপ্তাই প্রেসক্লাবে বৃহস্পতিবার (৮ই অক্টোবর) দুপুরে সংবাদ সম্মেলন করেছে স্বামী ও দেবরদের অত্যাচার এবং প্রাণনাশের হুমকিতে গত ৪বছর যাবত এলাকাছাড়া চার সন্তানের জননী জোছনা বেগম।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন কাপ্তাইয়ের রাইখালী ইউনিয়নের মৃত রহম আলীর ৪র্থ সন্তান মো. ওসমানের স্ত্রী মোছাম্মৎ জোছনা আক্তার। এসময় উপস্থিত ছিলেন, জোছনা আক্তারের দুলাভাই মো. হেলাল উদ্দিন, ছোট ভাই বাদশা হাওলাদার প্রমূখ।  ৎ

লিখিত বক্তব্য পাঠকালে জোছনা আক্তার বলেন, ৩ মেয়ে এবং ১ ছেলে থাকা শর্তেও আমার অনুমতি ছাড়া ২টি বিয়ে করেছে স্বামী ওসমান। শুধু ২টি বিয়েই নয়, এছাড়া অনেক মেয়েদের সঙ্গেও অবৈধ সম্পর্কে জড়িয়েছেন তিনি। আমাকে দীর্ঘদিন শারীরিক অত্যাচার করায় ২০১১সালে চন্দ্রঘোনা থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করি। পরে স্বামী ওসমান, দেবর মো. রফিক, মো. হানিফ ও ইসমাইল কর্তৃক প্রাণ নাশের হুমকি ও পরিবার ছেড়ে বিতারণের নানান ষড়যন্ত্র করেন।

জোছনা বেগম আরও বলেন, ২০লক্ষ টাকার প্রস্তাবকৃত ‘নিকাহ নামা’য় আমার ভরণপোষণ সঠিকভাবে প্রদান করার অজ্ঞিকার করলেও দীর্ঘদিন যাবত স্বামী ওসমান আমার ও সন্তানদের ভরণপোষণ দিচ্ছেননা। ৯বছর আগে দায়ের করা মামলায় ওয়ারেন্ট হলেও এখনো তিনি পুলিশের হাতে আটক হয়নি। অথচ স্বামী ওসমান এবং আমার দেবর মো. রফিক, মো. হানিফ ও ইসমাইলের দেওয়া প্রাণ নাশের হুমকিতে জীবন বাঁচাতে গত ৪বছর ধরে এলাকা ছাড়া আমি। ৪ সন্তানের দিকে তাকিয়ে হলেও আমি চাই সংসারটা যেন পুনরায় গড়ে উঠে।

সুষ্ঠ বিচার প্রাপ্তির আশায় প্রশাসনের দপ্তরে দপ্তরে ঘুরেও বিচার না পাওয়ার অভিযোগ করেন জোছনা বেগম।

এ বিষয়ে চন্দ্রঘোনা থানা অফিসার ইনচার্জ ইকবাল বাহার চৌধুরী সাংবাদিকদের বলেন, তার বর্তমান ঠিকানা আমরা চিহ্নিত করতে চেষ্টা চালাচ্ছি। নিশ্চয় খুব শীঘ্রই ওয়ারেন্ট ভুক্ত আসামী ওসমানকে আটক করা হবে।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: কাপ্তাই, প্রেসক্লাব
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

eighteen + fifteen =

আরও পড়ুন