রাঙামাটিতে বড়দিন পালিত

fec-image

২৫ ডিসেম্বর খ্রিষ্টধর্মাবলম্বীদের প্রধান ধর্মীয় উৎসব শুভ বড়দিন । খ্রিষ্টধর্মের প্রবর্তক যিশুখ্রিষ্ট আজকের এ দিনে বেথলেহেম শহরে জন্মগ্রহণ করেন। খ্রিষ্টধর্মাবলম্বীদের বিশ্বাস, সৃষ্টিকর্তার মহিমা প্রচার এবং মানবজাতিকে সত্য ও ন্যায়ের পথে পরিচালনা করার জন্য যিশুখ্রিষ্ট জন্ম নিয়েছিলেন।

সারা বিশ্বের ন্যায় রাঙামাটিতেও খ্রিষ্টধর্মের মানুষেরা ধর্মীয় প্রার্থনা ও আনন্দ-উৎসবের মাধ্যমে দিনটি উদ্যাপন করছেন। গির্জার ভেতর বর্ণিল সাজে সাজানো হয়েছে। আলোকসজ্জায় দৃষ্টিনন্দন করা হয়েছে ক্রিসমাস ট্রি, সেই সঙ্গে চলছে বড়দিনের গানবাজনা।

গত বছর বৈশ্বিক মহামারী পরিস্থিতির কারণে সীমিত পরিসরে এবং অনেকটা অনাড়ম্বরভাবে পালন করতে হয়েছে আজকের এই দিনটি। বর্তমানে দেশে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে থাকায় গতবারের চেয়ে বড়দিনের আয়োজনে আনন্দ উৎসব কিছুটা বাড়লেও ধর্মীয় আচার-অনুষ্ঠান পালনের ক্ষেত্রে মাস্কের ব্যবহারসহ স্বাস্থ্যবিধি মেনে উৎসব পালন করছেন খ্রিষ্টধর্মের মানুষেরা।

শনিবার বড়দিন হলেও রাঙামাটির বিভিন্ন গির্জায় উৎসব উদ্যাপন শুরু হয়েছে গতকাল সন্ধ্যার প্রার্থনা অনুষ্ঠানের পর থেকেই । শুক্রবার রাতে রাঙামাটির সাধু যোসেফ গীর্জায় সমবেত প্রার্থনা আর কেক কাটার মধ্য দিয়ে শুরু হয় খ্রীষ্ট জন্মোৎসব। বড়দিনের বিশেষ প্রার্থনায় প্রাণঘাতী ভাইরাস করোনা থেকে মুক্তি পেতে প্রার্থনা করা হয় । রাঙামাটি ছাড়াও বিলাইছড়ি, কাপ্তাই, রাজস্থলীতেও খ্রীষ্ট ধর্মাবলম্বীরা বড়দিন উৎসবে আনন্দে মেতে উঠেছে।

গির্জার পাশের কবরস্থানে অনেককে মোমবাতি জ্বালাতে দেখা গেছে। আজ ২৫ ডিসেম্বর সকাল থেকে কয়েক দফায় বড়দিনের প্রার্থনা অনুষ্ঠিত হবে বলে জানান সংশ্লিষ্টরা।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

five + 4 =

আরও পড়ুন