কুতুপালং ২নং শরণার্থী ক্যাম্পে নতুন-পুরাতন রোহিঙ্গাদের মধ্যে সংঘর্ষ-গুলি বিনিময়, আহত-৫

fec-image

উখিয়ার কুতুপালং ২নং শরণার্থী ক্যাম্পে রেজিস্ট্রার রোহিঙ্গা ও নতুন রোহিঙ্গাদের মধ্যে ২ ঘণ্টাব্যাপী দফায় দফায় সংঘর্ষ হয়েছে। এতে অন্তত ৫ জন আহত হয়েছে এবং ৩জন রোহিঙ্গা প্রতিপক্ষ গ্রুপের হাতে অপহরণের শিকার হয়েছে বলে জানা যায়।

রবিবার(৩০ আগস্ট) কক্সবাজারের উখিয়ার কুতুপালং রোহিঙ্গা শিবিরে সকাল ১১থেকে ১টা পর্যন্ত দফায় দফায় রোহিঙ্গা দুই সন্ত্রাসী গ্রুপের মধ্যে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে ব্যাপক সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে।

কুতুপালং ক্যাম্পের রোহিঙ্গা নেতা নুর বশর জানান, দীর্ঘদিন ধরে রেজিস্ট্রার্ড ও আনরেজিস্ট্রার্ড ক্যাম্পের দুই গ্রুপের মধ্যে চাঁদাবাজি, অপহরণ, আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দফায় দফায় গুলাগুলি ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে আসছে।

সর্বশেষ রোববার আবারো ঘটনা ঘটে লম্বাশিয়া মাস্টার মুন্না এবং হাফেজ জাবের ও সাইফু্র গ্রুপের মধ্যে।

এতে মুন্না গ্রুপের ৫জন আহত এবং ৩জন আপহরণ হওয়ার সংবাদ পাওয়া গেলেও তাৎক্ষণিক তাদের নাম ঠিকানা পাওয়া যায়নি৷ তবে আহতদের কুতুপালং এমএসএফ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে৷

এর আগে শনিবার সংঘর্ষের ঘটনায় নারী‘সহ ৩জন আহত হয়েছে। এসময় দা’র কোপে আহত ২জন মহিলাকে কুতুপালং এমএসএফ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আর গুলিবিদ্ধ নুর আলমকে প্রথমে কক্সবাজার পরে চট্টগ্রাম হাসপাতালে প্রেরণ করেছে।

সে কুতুপালং টু-ইস্ট ক্যাম্পের আহমদ হোসেনের ছেলে। তার অবস্থা আশংকাজনক বলে সূত্র জানিয়েছে।

কুতুপালং ক্যাম্প ইনচার্জ মো. খলিলুর রহমান খান নিকট জানতে চাইলে তিনি ছুটিতে রয়েছেন বলে ফোন কেটে দেন।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: উখিয়া, রোহিঙ্গা
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

one × 5 =

আরও পড়ুন